সম্প্রতি পাকিস্তান ছাড়ার হুঁশিয়ারি দিল বিশ্বের তিন বৃহত্তম সংস্থা গুগল, ফেসবুক ও টুইটার

22
সম্প্রতি পাকিস্তান ছাড়ার হুঁশিয়ারি দিল বিশ্বের তিন বৃহত্তম সংস্থা গুগল, ফেসবুক ও টুইটার

বিশ্বের তিন বৃহত্তম টেক ও সোশ্যাল মিডিয়া সংস্থা গুগল, ফেসবুক, টুইটার পাকিস্তান ছাড়ার হুঁশিয়ারি দিল। এই হুঁশিয়ারিযে অস্বস্তিতে ইমরান খানের সরকার। ইন্টারনেটে যা কিছু উপলব্ধ, তার সবই এবার থেকে সেন্সর করার নয়া নিয়ম চালু করেছে ইসলামাবাদ এবং এতেই চটেছে এই ইন্টারনেট সংস্থাগুলি।

শুক্রবার এশিয়া ইন্টারনেট কোয়ালিশন(AIC) এর তরফে এক টুইটে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলা হয়েছে, অস্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় তৈরি পাক সরকারের কিছু নিয়মের মাধ্যমে ইন্টারনেট সংস্থাগুলিকে আক্রমণ করা হচ্ছে। নতুন পাক আইনে বলা হয়েছে, ডিজিটাল কন্টেন্ট সেন্সর করার ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে। যাকে বাকস্বাধীন‌তা রোধ করার প্রয়াস হিসেবেই দেখছে ওয়াকিবহাল মহল।

পাকিস্তানের এই নতুন আইনকে ‘প্রিভেনশন অফ ইলেকট্রনিক ক্রাইমস অ্যাক্ট ২০১৬’ বা পেকা আইন‌ের অন্তর্গত করা হয়েছে। নতুন আইনে AIC জানাচ্ছে, এই কড়া আইনের ফলে মানুষের কাছে ইন্টারনেট আর ততটা মুক্ত থাকবে না। এরফলে একদিকে বাকি বিশ্বের থেকে পাকিস্তানের ডিজিটাল অর্থনীতি বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে। সোশ্যাল মিডিয়া সংস্থাগুলিকে মানবাধিকার লঙ্ঘন করা এবং ব্যক্তিস্বাধীনতা হরণের মতো পদক্ষেপের জন্য জোর করা হবে।

এরফলে গুগল, ফেসবুক, টুইটারের মতো সংস্থার পক্ষে ব্যবসা, সাধারণ গ্রাহকদের জন্য পরিষেবা দেওয়া অসম্ভব হয়ে পড়বে। পাশাপাশি পাক সরকারকে এই বিষয়টি নিয়ে নতুন করে ভাবতে বলা হয়েছে। বলা হয়েছে যে, পাকিস্তান যদি প্রযুক্তিতে লগ্নির জন্য আকর্ষণীয় কেন্দ্র হয়ে উঠতে চায়, তবে তাদের বাস্তবানুগ ও পরিষ্কার আইন করতে হবে। যারফলে সাধারণ মানুষ ইন্টারনেট থেকে লাভবান হতে পারেন।