খাবার পাচ্ছেন, স্কুল রং করলেন পরিযায়ী শ্রমিকরা

53
খাবার পাচ্ছেন, স্কুল রং করলেন পরিযায়ী শ্রমিকরা

গোটা দেশ জিরে করোনা আতঙ্ক। বাড়ছে সংক্রমণ, বাড়ছে মৃত্যুও। করোনা মোকাবেলার জন্য গোটা দেশ জুড়ে ৩ মে পর্যন্ত লকডাউন বাড়িয়ে দিয়েছে কেন্দ্র সরকার। ৫৪ জন পরিযায়ী শ্রমিককে ২২ দিন ধরে একটি সরকারি স্কুলে আটকে থাকতে হয়েছে। তাঁরা বাড়ি থেকে দূরে কাজের সন্ধানে অসহায়ের মতো ঘুরছিলেন, কিন্তু শেষ পর্যন্ত রাজস্থানের শিকর জেলার দুই স্কুলে তাঁদের ঠাঁই মিলেছে। খারাপ সময়ে আশ্রয় পেয়ে কৃতজ্ঞ ওই শ্রমিকরা। তার প্রতিদান দিলেন তাঁরা। স্কুল দুটিকে রং করে দিলেন।

বিহার, উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানা এবং মধ্যপ্রদেশ থেকে কাজের সন্ধানে এখানে এসে পৌঁছেছিলেন এই শ্রমিকরা। হরিয়ানার হিসর জেলার বারওয়ালা থেকে আসা শঙ্কর সিংহ বলেছেন, ওঁরা তাঁদের এত ভাল খাবার দিয়েছিলেন, জিলিপি, ক্ষীর, চা-বিস্কুট। তাই তাঁরা জানতে চেয়েছিলেন তাঁরা কোনও ভাবে উপকারে আসতে পারেন কিনা। তথন পঞ্চায়েত প্রধান স্কুল দুটি রং করার কথা উল্লেখ করেন।

লকডাউন শুরু হওয়ার পর বাকি শ্রমিকদের মত তাঁরাও বাড়ির উদ্যেশ্যে চলছিলেন। পথে পুলিশ তাঁদের আটকে দেয় এবং এখানে নিয়ে আসে। তাঁদের থাকার ব্যবস্থা করে দেন পঞ্চায়েত প্রধান এবং স্কুলের প্রধান শিক্ষকরা। পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য স্কুলে থাকার বন্দোবস্ত করা হয় পাশাপাশি অতিথিদের রাজস্থানি খাবার দাবারও সরবরাহ করা হয়। এরপর নিজেদের খরচে ১ লক্ষ টাকার রং এবং ব্রাশ কিনে দেওয়া হয় ওই শ্রমিকদের। তাঁরা আগেই শ্রমিকরা জানিয়েছিলেন, খাদ্য এবং আশ্রয়ের বিনিময়ে তাঁরা গ্রামের কোনও উপকারে আসতে চান।