এই পাঁচটি খারাপ অভ্যাস ত্যাগ করুন যা আপনার জীবনে দুর্ভাগ্য ডেকে আনতে পারে

12
এই পাঁচটি খারাপ অভ্যাস ত্যাগ করুন যা আপনার জীবনে দুর্ভাগ্য ডেকে আনতে পারে

আমরা বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন কাজ করতে করতে বহু জিনিস খোলা রেখেই উঠে পড়ি। এই যেমন বই পড়তে পড়তে বই খোলা রেখে উঠে গেলাম, অথবা খাবারের পাত্র খোলা রেখেই অন্যত্র কোথাও গেলাম! তবে জানেন কি এই অভ্যাস আপনার জীবনে অমঙ্গল ডেকে আনতে পারে? এমন কিছু খারাপ অভ্যাস আপনার জীবনে দুর্ভাগ্য ডেকে আনতে পারে। জেনে নিন এমন কোন কোন কাজ করবেন না যা আপনার জীবনে দুর্ভাগ্য বহন করে আনে।

বই : বইয়ের সঙ্গে বুধ গ্রহ সম্পর্কযুক্ত। বুধ এর প্রভাব পড়ে বুদ্ধির উপর। বই পড়তে পড়তে খোলা রেখে চলে যাওয়া উচিত নয়। এতে বই ছিঁড়ে যেতে পারে। যাতে মা সরস্বতী রুষ্ট হন। এমনটা করলে জন্ম ছকের উপর প্রভাব পড়ে। এর ফলে বুদ্ধি ও স্মৃতিশক্তি দুর্বল হয়ে যেতে পারে। তাই এই বিষয়ে সাবধান থাকা উচিত। বিশেষত বাচ্চাদের সাবধান করা উচিত।

ওয়ার্ডরোব : আলমারি থেকে কোন কিছু বের করার পর অনেকেই আলমারীর দরজা খোলা রেখে চলে যান। এই অভ্যাস কিন্তু আপনার জন্য ক্ষতিকর হতে পারে। কাবার্ড এবং লকার খোলা রাখলে মা লক্ষ্মী রেগে যান। তাই আলমারি থেকে প্রতিবার জিনিসপত্র বের করার পর আলমারীর দরজা অবশ্যই ভালোভাবে বন্ধ করুন।

খাবার : খাবারে মা অন্নপূর্ণার বাস। খাবার খোলা রাখা কিংবা ফেলে রাখা মানে মা অন্নপূর্ণাকে অপমান করা। তাই খাবারের পাত্রকে সবসময় ঢেকে রাখা উচিত। নতুবা খাবারের ধুলো-ময়লা পরে। এমন খাবার খাওয়া স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। এতে আপনার চরম ক্ষতি হতে পারে।

দুধ : দুধ ও দই চন্দ্র ও শুক্রের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত। তাই বাড়িতে সময় দুধ এবং দই এর পাত্রের মুখ ঢেকে রাখবেন। দুধ এবং দই এর পাত্র খোলা রাখলে তার মধ্যে নোংরা আবর্জনা পর্ড়তে পারে। এমন নোংরা মেশানো খাবার খেলে পরিবারের সদস্যদের শারীরিক ক্ষতি হতে পারে।

নুন : জ্যোতিষশাস্ত্র মতে নুনের সঙ্গে চাঁদের সম্পর্ক রয়েছে। নুন খোলা রাখলেও সংসারে অশুভ প্রভাব পড়তে পারে। নুন খোলা রাখলে তার মধ্যে কিছুক্ষণের মধ্যেই টক্সিক পদার্থ সৃষ্টি হয়। বাতাসের সংস্পর্শে কিছুক্ষণ রাখার পরে নুন আর খাওয়ার অবস্থায় থাকে না। তাই যখনই নুন ব্যবহার করবেন, ব্যবহারের পর পাত্রের মুখ বন্ধ রাখবেন।