জ্বালানি তেলের সংকট! ভারতের কাছে সাহায্য চাইল শ্রীলঙ্কা

9
জ্বালানি তেলের সংকট! ভারতের কাছে সাহায্য চাইল শ্রীলঙ্কা

জ্বালানি তেল কিনার জন্য ভারতের কাছে সাহায্য চাইল শ্রীলঙ্কা। এতদিন চীনের কাছ থেকে জ্বালানি তেল সংগ্রহ করে এসেছে তারা। তবে এখন চীনের বদলে ভারত হয়ে উঠেছে শ্রীলঙ্কার আশা-ভরসাস্থল। গুরুতর বৈদেশিক মুদ্রা সংকটের কারণ এই প্রধানত ভারতের কাছে 50 কোটি ডলার অর্থ সাহায্য চেয়েছে শ্রীলঙ্কা। রবিবারে একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে এমন খবর প্রকাশ করা হয়েছে।

শ্রীলঙ্কার পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী উদয়া গাম্মানপিলা কিছুদিন আগেই আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন যে আগামী জানুয়ারি মাসে শ্রীলঙ্কায় মজুদ জ্বালানি তেল শেষ হয়ে যাবে। তারপরেই কার্যত তড়িঘড়ি তেল কেনার জন্য ভারতের কাছে ঋণ চেয়ে বসে কলম্বো। শ্রীলংকার রাষ্ট্রীয় জ্বালানি কোম্পানি সিলন পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন এর চেয়ারম্যান সুমিত উইজেসিঙ্গে জানিয়েছেন ভারত-শ্রীলঙ্কা অর্থনৈতিক পার্টনারশিপের আওতায় 50 কোটি ডলার ঋণের জন্য ভারতীয় হাই কমিশনের কাছে আবেদন জানিয়েছে শ্রীলঙ্কা।

দেশের পেট্রোল ডিজেল কেনার জন্য ওই টাকা ব্যবহার করা হবে। শীঘ্রই দুই দেশের মধ্যে এই সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে। উল্লেখ্য শ্রীলংকার হাম্বানটোটা বন্দর 99 বছরের জন্য লিজ নিয়েছে চীন। আর এতেই কার্যত ভারতীয় নৌসেনার বিভাগের কপালে চিন্তার ভাঁজ দেখা দিয়েছে। কারণ আরো একটি বন্দর চীনের দখলে চলে আসছে।

বিষয়টি নয়াদিল্লি অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে দেখছে। ঢুকলাম এরপর গালওয়ান উপত্যকা ভারত এবং চীন সীমান্ত সংঘর্ষের পর উভয় প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সম্পর্ক তলানীতে। শ্রীলঙ্কার বন্দরে চীনের আধিপত্য বিস্তারের পর ভারতের চিন্তা আরো বাড়লো। এখন আবার শ্রীলঙ্কাকে ঋণের ফাঁদে ফেলতে চাইছে চীন। ভারত মহাসাগরে ভারতকে ঘিরে ফেলার বন্দোবস্ত করছে চীন। চীনের ষড়যন্ত্রে বুঝে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসে ছিলেন ভারতীয় বিদেশ সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা।