এবার থেকে আরও দুটি পর্যটন কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়ানো হলো পশ্চিমবঙ্গে

9
এবার থেকে আরও দুটি পর্যটন কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়ানো হলো পশ্চিমবঙ্গে

রাজ্যের পর্যটন ব্যবস্থার উন্নতির জন্য বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করলো রাজ্যের পর্যটন বিভাগ। এবার থেকে পশ্চিমবঙ্গের পর্যটন কেন্দ্রের সংখ্যা আরও দুটি বাড়ানো হলো। মাহেশের জগন্নাথ মন্দির ও বলাগড়ের সবুজ দ্বীপ, হুগলির এই দুই স্থানকে ঢেলে সাজাচ্ছে রাজ্য সরকার। রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন এই আশ্বাস দিলেন। সম্প্রতি তিনি মাহেশের জগন্নাথ মন্দির এবং বলাগড়ের সবুজদীপ পরিদর্শন করতে গিয়েছিলেন।

প্রসঙ্গত মাহেশের রথ দেখার জন্য প্রতিবছর বহু মানুষ ওই এলাকায় ভিড় জমান। তাই এই সঙ্ঘে উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থান হিসেবে গড়ে তোলার পরিকল্পনা ছিল রাজ্য সরকারের। শুধু রাজ্যের পর্যটকদের কাছে নয়, ভিন রাজ্য এমনকি বিদেশি পর্যটকদের কাছেও এই ঐতিহাসিক দর্শনীয় স্থানের গুরুত্ব তুলে ধরার উদ্দেশ্যে এই স্থানকে ঢেলে সাজাচ্ছে রাজ্যের পর্যটন বিভাগ।

মাহেশের মন্দির সংস্কারের কাজ প্রায় হয়ে এসেছে। পর্যটন মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন বলেন ২০১৮ সালে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মাহেশকে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার নির্দেশ দেন। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মত ২০১৯ সালে মন্দিরের সংস্কারের কাজ শুরু হয়। তবে করোনার জন্য অবশ্য মন্দিরের অগ্রগতির কাজ কিছুটা থমকে গিয়েছিল। বর্তমানে কাজ প্রায় হয়ে এসেছে। আর এক থেকে দুই শতাংশ কাজ বাকি আছে বলে জানিয়েছেন পর্যটন মন্ত্রী।

মাহেশের উন্নয়ন নিয়ে জেলাশাসক দীপাপ প্রিয়া পি, বিধায়ক সুদীপ্ত রায়, মন্দির কমিটির সেক্রেটারি পিয়াল অধিকারী-সহ অন্যান্য প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন পর্যটনমন্ত্রী। ২০১১ সালে তৎকালীন পর্যটন মন্ত্রী রচপাল সিংও সবুজ দ্বীপ পরিদর্শনে এসেছিলেন। সেই সময় সবুজদ্বীপকে পর্যটন স্থান হিসেবে গড়ে তোলার নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী। ২০১৭ সালে এই স্থানকে ইকোপার্ক হিসেবে ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। করোনার জন্য সেই কাজ থমকে ছিল। একুশের বিধানসভা নির্বাচনের পর কাজে আবার গতি এসেছে।