এবার থেকে দিনে ২ বার রেশন দেয়া হবে, ভিড় এড়াতে রেশন দোকান খোলার সময়সীমা বেধে দিল সরকার

32
এবার থেকে দিনে ২ বার রেশন দেয়া হবে, ভিড় এড়াতে রেশন দোকান খোলার সময়সীমা বেধে দিল সরকার

রাজ্য সরকার বিভিন্ন ধরনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করছে। যাতে মানুষের সংক্রমণ কম হয়, মানুষ যাত এজমায়েত থেকে দূরে থাকে। এর জন্য মিষ্টির দোকান খোলা নিয়েও কিছু নিয়ম বিধি বেধে দিয়েছে সরকার। এবার তার পরে রেশনের দোকান খোলা নিয়েও কিছু নিয়ম বিধি বেধে দিল সরকার।মানুষ যাতে রেশনের দোকানে ভিড় না জমায়, মানুষ যাতে কোনভাবেই সরকারী নিয়ম ভঙ্গ না করে, সেই জন্য এবার থেকে দিনে খোলা হবে দুবার রেশনের দোকান।

আজ খাদ্য সরবরাহ দপ্তরের থেকে একটি নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে, আর সেখানেই বলা হয়েছে সকাল ৮ টা থেকে বেলা ১২ টা পর্যন্ত একবার রেশনের দোকান খোলা হবে , তার পরে দুপুর ২ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত আরেকবার রেশনের দোকান খোলা হবে। এই নিয়ম আগামী ২৪ এপ্রিল থেকে ৩১ মে পর্যন্ত চালু থাকবে, সেই কথা জানিয়েছে খাদ্য দফতর। তবে হ্যা আগামী ২৫ এপ্রিল, সেদিন ঈদ-উল- ফিতর , সেই কারণে বন্ধ রাখা হবে রেশনের দোকান।

এদিকে এর সাথে রেশনের কিছু নিয়মেও বদল ঘটিয়েছে সরকার। আগে যেমন মাথা পিছু ২ কেজি করে চাল বরাদ্দ করা হয়েছিল,ও সাথে ৩ কেজি করে গম। সেটার এখন বদল ঘটানো হল। এবার সরকারের তরফ থেকে বলা হয়েছে , এখন থেকে আর দেওয়া হবে না গম। তার বদলে দেওয়া হবে ৫ কেজি করে চাল। এদিকে করোনা পরিস্থিতি শুরু হওয়ার আগেই রাজ্য ঘোষণা করেছিল আগামী ৬ মাস বিনামূল্যেই দেওয়া হবে রেশন। তার মধ্যেই থাকবে ২ কেজি চাল ও ৩ কেজি গম। কিন্তু সরকার এবার গম দেওয়া বন্ধ করতে বাধ্য হল। কারণ দেখা যাচ্ছে অনেকেই গম নিতে চাইছে না, সবাই বলছে তাদের চাল দেওয়া হোক।

এর জন্য রেশন ডিলারেরা অনেকটাই পরছে চাপের মধ্যে। তাই এবার সরকারের তরফ থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হল, এখন গমের বদলে চাল দেওয়া হবে শুধু সাধারণ মানুষদের। এর জন্য রাজ্যের ৯ কোটি ৬০ লক্ষ মানুষ উপকৃত হবে বলে জানা গেছে। কিছুদিন আগেই বিরোধীরা অভিযোগ তুলেছিল রেশন দুর্নীতি নিয়ে, তাদের দাবি ছিল সাধারণ মানুষ ঠিকমতো তাদের রেশন পাচ্ছেন না, তারা অনেকেই বঞ্চিত হচ্ছেন। এর পরেই মমতা ব্যানার্জী বলেন, সরকার রেশন নিয়ে অনেকটাই তৎপর, তাই মানুষকে এই সবে কান না দিয়ে সরকারের নিয়ম মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছেন।।