নেতাজির জন্মদিনকে “পরাক্রম দিবস” নয় “দেশপ্রেম দিবস” হিসেবে পালন করার আর্জি ফরওয়ার্ড ব্লকের

11
নেতাজির জন্মদিনকে

আগামী ২৩শে জানুয়ারি, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫ তম জন্মবার্ষিকী পালিত হবে দেশজুড়ে। সম্প্রতি ওই বিশেষ দিনটিকে পরাক্রম দিবসের মর্যাদা দিয়েছে কেন্দ্র। ওই বিশেষ দিনটি দেশজুড়ে পরাক্রম দিবস হিসেবে পালিত হবে বলেই জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রক। তবে কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করছে ফরওয়ার্ড ব্লক। “পরাক্রম দিবস” নয়, নেতাজির জন্মদিন “দেশপ্রেম দিবস” হিসেবে পালন করার পক্ষে সওয়াল করছে ফরওয়ার্ড ব্লক।

ফরওয়ার্ড ব্লকের সাধারণ সম্পাদক দেবব্রত বিশ্বাস কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তকে “দুর্ভাগ্যজনক” বলে মন্তব্য করেছেন। তার বক্তব্য অনুসারে, দেশের মানুষ এই দিনটিকে দেশপ্রেম দিবস হিসেবে পালন করেন। তিনি আরও বলেছেন, নেতাজির আদর্শের সঙ্গে পরাক্রমের আদর্শের কোনো মিল নেই। বরং তার আদর্শ দেশপ্রেমের আদর্শের সঙ্গেই মিলে যায়। অতএব নেতাজির জন্মদিন “দেশপ্রেম দিবস” হিসেবে পালিত হওয়া উচিত।

ফরওয়ার্ড ব্লকের সাধারণ সম্পাদকের দাবি, পরাক্রম এবং দেশপ্রেম এক নয়। দুটির আদর্শ আলাদা। নেতাজি দেশপ্রেমের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। তাই তার জন্মদিনটি “পরাক্রম দিবস” হিসেবে পালন করা চলে না। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, নেতাজির জন্মদিনটি এই বছর দেশজুড়ে সাড়ম্বরে পালিত হতে চলেছে। আগামী ২৩শে জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বাংলায় আসছেন।

বছরভর দেশজুড়ে নেতাজীর জন্ম জয়ন্তী পালনের জন্য কী কী কর্মসূচি এবং অনুষ্ঠান পালন করা হবে, সে সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নিতে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি বিশেষ কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটিতে রয়েছেন নেতাজি গবেষকেরা, বিভিন্ন দিকের দিকপাল, বিদ্বজনেরা। এছাড়াও বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, শুভেন্দু অধিকারী, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের মতো বিশিষ্টজনেরা উক্ত কমিটিতে রয়েছেন।