সীমান্ত উত্তেজনা প্রশমনে এবার রাশিয়ার উদ্যোগে বৈঠকে অংশ নিতে চলেছেন চীন ও ভারতের বিদেশ মন্ত্রীরা

8
সীমান্ত উত্তেজনা প্রশমনে এবার রাশিয়ার উদ্যোগে বৈঠকে অংশ নিতে চলেছেন চীন ও ভারতের বিদেশ মন্ত্রীরা

সম্প্রতি, লাদাখ সীমান্ত সংঘাত সম্পর্কে রাশিয়ার মস্কোয় ভারত এবং চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের মুখপাত্ররা একে অপরের সাথে বৈঠক করেন। তবে সেই বৈঠকের ফলাফল বিশেষ লাভজনক হয়নি। উপরন্তু উভয় রাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী একে অপরের প্রতি কার্যত হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। প্রতিরক্ষামন্ত্রকের পর এবার ভারত এবং চীনের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্ররা রাশিয়ার মস্কো শহরেই আজ একে অপরের সাথে বৈঠকে বসতে চলেছেন।

উল্লেখ্য, কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞরা আগেই জানিয়েছিলেন, ভারত এবং চীনের মধ্যে উদ্ভূত সীমান্ত উত্তেজনা প্রশমনে মধ্যস্থতা করতে চাইছে রাশিয়া। সম্প্রতি, চীনা বিদেশ মন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, রাশিয়ায় বিদেশ মন্ত্রী সার্জে ল্যাভরয়ে নিজে উদ্যোগ নিয়ে ভারত এবং চীনের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্রদের মধ্যে বৈঠকের আয়োজন করেছেন। এই বৈঠকে অংশ নিতে চলেছেন ভারতের বিদেশ মন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এবং চীনের বিদেশ মন্ত্রী ওয়াং ই।

এর আগে চীন এবং ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীদের বৈঠকের ফলাফল বিবেচনা করার পর, এদিনের বৈঠকের ফলাফল যে খুব একটা আশাপ্রদ হবে, তা মনে করছেন না কূটনীতিকরা। তবে, সীমান্ত উত্তেজনা প্রশমনের উদ্দেশ্যেই এই বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে। উল্লেখ্য, পূর্ব লাদাখ সীমান্তে অবস্থিত প্যাংগং লেকের আধিপত্য নিয়ে চীন এবং ভারতের মধ্যে সংঘাত বেধেছে।

চীনা অনুপ্রবেশকারীরা বারবার ভারতীয় ভূখণ্ডে তাদের আধিপত্য বিস্তার করার চেষ্টা চালাচ্ছে। তবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর তৎপরতায়, এপর্যন্ত চীনা লালফৌজের ভারতীয় ভূখণ্ড আগ্রাসনের সমস্ত পরিকল্পনা ব্যাহত হয়েছে। চীনা সেনাবাহিনী এ পর্যন্ত সীমান্তের যে সকল এলাকা নিজেদের দখলে রেখেছিল, চিনা সৈন্যদের হটিয়ে সেই সকল এলাকার দখল নিয়েছে ভারতীয় সৈন্য বাহিনী। সীমান্তে এই মুহূর্তে দুই প্রতিবেশী রাষ্ট্রই কার্যত একে অপরের দিকে রাইফেল উঁচিয়ে রয়েছে।