মেনে চলুন পদ্মপুরাণ এর এই বিশেষ রীতি সুখ ও সমৃদ্ধিতে ভরে উঠবে জীবন

9
মেনে চলুন পদ্মপুরাণ এর এই বিশেষ রীতি সুখ ও সমৃদ্ধিতে ভরে উঠবে জীবন

পদ্মপুরাণ এর রচয়িতা হলেন প্রজাপতি ব্রহ্মা। ব্রহ্মা জন্ম হয় ভগবান বিষ্ণুর নাভিকুন্ড থেকে। পরে ব্রহ্মবৈবর্ত পুরাণের সৃষ্টি করে। পদ্মপুরাণ অনুসারী কিছু কিছু পথ অনুসরণ করলে আমাদের মঙ্গল হবে।পদ্মপূরাণে বলা আছে কোন স্ত্রী যদি তার ভক্তিসহকারে স্বামীর সেবা করে তাহলে সেই স্ত্রীর পূর্ণ হবে। এমনকি স্বামীর পণ্যের ভাগীদার স্ত্রী হতে পারে।

কোন গাভীর খুরের ধূলিকণা কোন মানুষ যদি মাথায় নেয় তাহলে সেই মানুষের পাপ মুক্তি হয় বলে পদ্মপুরাণে লেখা আছে। গোমাতার সেবা করলে গোভক্ত মানবপুত্র, ধন, বিদ্যা, সুখ ও সমৃদ্ধি পাওয়া যায় জীবনে ৷

শালগ্রাম, তুলসি ও শঙ্খকে একসঙ্গে রাখলে ঈশ্বরের প্রসন্নতা লাভ করা যায়৷ কিন্তু প্রদীপ, শিবলিঙ্গ, মণি, দেব প্রতিমা, মাণিক্য, হিরে, সোনা, তুলসি, রুদ্রাক্ষ, ফুলের মালা, জপমালা, ফুল, চন্দন, ফুল, কর্পূর, গোচনা এই সমস্ত মাটিতে রাখলে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়