মহালয়ার দিন মেনে চলুন এই বিশেষ কটি নিয়ম, নাহলে আপনার জীবনে ঘোর বিপদ নেমে আসতে পারে

16
মহালয়ার দিন মেনে চলুন এই বিশেষ কটি নিয়ম, নাহলে আপনার জীবনে ঘোর বিপদ নেমে আসতে পারে

বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপূজা এই উৎসবের জন্য বাঙালিরা বিগত এক বছর ধরে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকে। আর মহালয়ার আগমন ঘটলেই বাঙ্গালীদের মন উৎফুল্ল হয়ে ওঠে। কারণ মহালয়া মানেই পুজো এসে গেল বলায় বাহুল্য। অর্থাৎ মহালয়া দিনই দেবীপক্ষের আগমন হয় । আর মহালয়া এসে গেল মানেই আর বেশি দিন বাকি নেই পুজোর এটাই ধরে নেওয়া হয়। কিন্তু এবছরের মহালয়া অন্যান্য বছরের থেকে অনেকটাই আলাদা, কারণ মহালয়ার একমাস পরে এই বছরের দুর্গা পুজো।

মহালয়া দিন অতি গুরুত্বপূর্ণ দিন কারন এই দিনেই দেবী দূর্গার আগমন ঘটে। তাই দেবী যাতে অসন্তুষ্ট না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখা উচিত।এই জন্য মহালয়া দিন কিছু কিছু বিষয় মেনে চলা উচিত, নাহলে আপনার জীবনে ঘোর বিপদ নেমে আসতে পারে। মহালয়ার দিন কখনোই কোন নারীকে অপমান করা উচিত নয় ।কারণ মনে করা হয় দেবীদুর্গা প্রত্যেক নারীর মধ্যে বাস করেন। তাই মহালয়ার দিন প্রত্যেক নারীকে সম্মান করুন তাহলে আপনার ভালো হবে। এছাড়াও এই দিনে কোন রকম নেশা জিনিস খাওয়া উচিত নয় এতে দেবীদুর্গা অসন্তুষ্ট হয় ।

মহালয়ার দিন নিরামিষ খাবার গ্রহণ করায় সবথেকে ভালো। শাস্ত্রমতে প্রত্যেক পূর্নিমা-অমাবস্যা নিরামিষ আহার গ্রহণ করাই উচিত। প্রত্যেক পূনিমা-অমবস্যা যদি নাও মানতে পারেন এই মহালয়ার দিন অন্ততপক্ষে নিরামিষ খাবার খাওয়া উচিত। অন্যদিকে মহালয়া দিন কাউকে কোন টাকা ধার দেওয়া উচিত নয়। কারণ মনে করা হয় মহালয়া দিন যদি কাউকে টাকা ধার দেওয়া হয় তাহলে সেই টাকা আর ফেরত পাওয়া যায় না। শাস্ত্র মতে, মহালয়ার দিন তর্পণ করার রীতি আছে। অর্থাৎ আপনারা যদি নিজেদের পূর্বপুরুষকে এই দিনে জল দান করতে পারেন এবং সন্তুষ্ট করতে পারেন। তাহলে পূর্বপুরুষদের থেকে আশীর্বাদ গ্রহণ করা যায়, জীবনে কোন বাধা ও সমস্যা সম্মুখীন হতে হয়না।