আগামীকাল মুক্তি পেতে পারে চীন সীমান্তে অপহৃত অরুণাচল প্রদেশের পাঁচ কিশোর

4
আগামীকাল মুক্তি পেতে পারে চীন সীমান্তে অপহৃত অরুণাচল প্রদেশের পাঁচ কিশোর

সম্প্রতি, ভারত চীন সীমান্তে অবস্থিত অরুণাচল প্রদেশের আপার সুবানসিরি জেলার নাচো এলাকা থেকে পাঁচ কিশোরকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ ওঠে চীনা সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগ সত্যি প্রমাণিত করে, চীনের লাল ফৌজ স্বীকার করে নিল, দুমতু ইবিয়া, প্রসাদ রিংলিং, নাগারু ডেরি, তোচ সিংকম ও তানু বাকর নামের ওই পাঁচ ভারতীয় কিশোর এই মুহূর্তে চীনা সেনাবাহিনীর হেফাজতে রয়েছে।

উল্লেখ্য, ওই পাঁচ ভারতীয় কিশোরকে অপহরণ করা প্রসঙ্গে চীনের কড়া সমালোচনা করেছিলেন অরুণাচল প্রদেশের কংগ্রেস বিধায়ক নিনং ইরিং। পাশাপাশি, ঘটনা প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করতে শুরু করেছিলেন তিনি। তবে, কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু দফতরের প্রতিমন্ত্রী কিরেন রিজিজু অবশ্য আশ্বাস দিয়েছিলেন, চীনের সেনা আধিকারিকদের সাথে এই বিষয় নিয়ে হটলাইনে যোগাযোগ করছে কেন্দ্র।

কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু দফতরের প্রতিমন্ত্রী জানিয়েছেন, ওই পাঁচ ভারতীয় কিশোরকে মুক্তি দেবার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র বানিয়েছে চীন। আগামীকাল তাদের মুক্তি দেওয়া হতে পারে। উল্লেখ্য, লাদাখ চীন সীমান্ত সংঘর্ষ আবহেই গত শুক্রবার সীমান্তে অনুপ্রবেশে করার অভিযোগে নাচো এলাকার সেরা ৭ নম্বর পেট্রোলিং পয়েন্ট থেকে ওই পাঁচ জনকে তুলে নিয়ে যায় চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি।

নিখোঁজদের সঙ্গে থাকা আরো দুইজন কিশোর চীনা সেনার নজর এড়িয়ে পালিয়ে এসে সমস্ত ঘটনা তাদের পরিবারের কাছে জানান। এরপর থেকেই চীনের কবল থেকে নিখোঁজদের মুক্ত করার দাবিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় সোচ্চার হোন তাদের পরিবার। এর পরের দিনই চীনা সেনা স্বীকার করে নেয়, ওই পাঁচ জন তাদের হেফাজতেই রয়েছে। উল্লেখ্য, সীমান্ত উত্তেজনার পরিস্থিতিতে চীন পাঁচ ভারতীয় কিশোরকে অপহরণ করায়, স্বভাবতই উত্তেজনার পারদ আরও বেড়েছে।