পাঁচ লক্ষ মানুষকে টাকা দেওয়া হয়েছে, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

30
পাঁচ লক্ষ মানুষকে টাকা দেওয়া হয়েছে, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

ইতিমধ্যেই গোটা দেশ জুড়ে ছেয়ে রয়েছে করোনা আতঙ্ক। পশ্চিমবঙ্গে ও এর ব্যতিক্রম নয়। পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬ হাজার অতিক্রম করে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গে এসে উপস্থিত হয়েছিলো ‘আমফান’ নামক এক ঘূর্ণিঝড়। এই ঝড় এতটাই শক্তিশালী ছিলো যে চলে যাওয়ার ৭২ ঘন্টা পরও এর ক্ষতিচিহ্ন সারা বাংলা জুড়ে ছিলো স্পষ্ট।

প্রসঙ্গত, এবার এই ‘আমফান’ কে ঘিরেই এবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী দিলো একটি বিবৃতি। এই সাইক্লোনের কারণে যে সমস্ত মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত তাদের সবাইকে সরকারের পক্ষ থেকে প্রায় ৫ লক্ষ মানুষকে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়েছে। এদিন এই কথাই টুইট করে জানালেন তিনি। এদিন তিনি টুইট্যে জানান, ” পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষ থেকে যে সমস্ত মানুষের বাড়িঘর ভেঙে পড়েছে তাদের সবাইকে ক্ষতিপূরণ সহ ২০ হাজার টাকা দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও কৃষকদের আলাদা করে দেওয়া হয়েছে ২৩.৩ লক্ষ টাকা। প্রাথমিক ভাবে মোট ১,৪৪৪ কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে”। এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

এছাড়াও তিনি জানিয়েছেন ঘূর্ণিঝড় দ্বারা বিধ্বস্ত জেলাগুলির পুননির্মাণের জন্য ৬২৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছেন তিনি। শুধু তাই নয় এছাড়াও আমফান দ্বারা বিধ্বস্ত নটি জেলার প্রায় পাঁচ লক্ষ পরিবারকে মুখ্যমন্ত্রী নিজে ২০ হাজার টাকা করে ক্ষতিপূরণ সহ প্রদান করেছেন। এই নটি জেলার মধ্যে রয়েছে উত্তর চব্বিশ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগণা, হাওড়া, হুগলি, নদীয়া, পূর্ব বর্ধমান, পশ্চিম মেদিনীপুর প্রভৃতি।