জেনে নিন হিপনিক জারকস কি এবং কেন হয়?

4
জেনে নিন হিপনিক জারকস কি এবং কেন হয়?

বহুবার এমন হয়েছে, ঘুমের মধ্যে আমাদের মনে হয়েছে যেন কোনো কিছু জায়গা থেকে আমরা পড়ে যাচ্ছি। ঘুমের মধ্যেই অসম্ভব একটি ঝাঁকুনি দিয়ে আমরা জেগে উঠে। আমরা যখন ঘুমাতে যাই, অর্থাৎ শরীরটা যখন তন্দ্রাচ্ছন্ন হয়ে পড়ে, তখন আমাদের মা ছিলো এবং পেশী গুলো আস্তে আস্তে অবশ হতে থাকে। কিন্তু মস্তিষ্ক শরীর পিসির এই অবস্থান ঠিক মত বুঝতে পারে না।

ঘুমের মধ্যে এরকম ঝাঁকুনি কে হিপনিক জারকস বলা হয়। জেগে থাকা অবস্থা থেকে সবেমাত্র ঘুমোতে যাওয়ার সময় এই ঘটনাটি ঘটে থাকে। এই সময় মানুষ পুরোপুরি ঘুমের মধ্যে চলে যায় না। সবেমাত্র তন্দ্রাচ্ছন্ন অবস্থায় স্বপ্ন দেখা শুরু করে মানুষ। তখনই শরীরটা প্রবলভাবে ঝাঁকুনি দিয়ে ওঠে, মনে হয় কোথা থেকে যেন পড়ে গেলেন। গবেষণা থেকে জানা যায় যে, শরীরে যেমন ঝাঁকুনি অভিজ্ঞতা বিশ্বের ৭০% মানুষ বুঝতে পেরেছেন।

তন্দ্রাচ্ছন্ন অবস্থায় শরীরের মাংসপেশি গুলো অবশ্ থাকে। মস্তিষ্ক শরীর পেশির অবস্থান ঠিক মত বুঝতে না পারার জন্য সেই প্রক্রিয়া আটকানোর চেষ্টা করে, ফলে আমাদের শরীরে ঝাঁকুনি হয়। যদিও কিছু মানসিক ও শারীরিক অসুবিধা ভেবে ভয় পেয়ে থাকেন। কিন্তু চিকিৎসকদের মতে, এতে ভয় পাবার কিছু নেই। তবে অনেক সময় নাক ডাকা থেকে এরকম ঘটনা ঘটতে পারে। স্নায়ুতন্ত্র উত্তেজনা প্রবাহ ঠিকমত বুঝতে না পারার ক্ষেত্রে এরকম ঘটনা ঘটে থাকে মানুষের সঙ্গে।