জানুন নেটপাড়ার নতুন ক্রাশ হয়ে ওঠা ‘Cadbury Girl’ এর পরিচয়

37
জানুন নেটপাড়ার নতুন ক্রাশ হয়ে ওঠা ‘Cadbury Girl’ এর পরিচয়

নব্বইয়ের দশকের একাধিক বিজ্ঞাপন আজও সাধারণ মানুষের মনে উজ্জ্বল হয়ে আছে। এর মধ্যে অন্যতম ছিল ক্যাডবেরির একটি বিজ্ঞাপন। সেই বিজ্ঞাপনের মুখ ছিলেন কাব্য রামাচন্দ্রন। তবে সকলের কাছে আজও তিনি ‘Cadbury Girl’ নামেই পরিচিত। আজ প্রায় তিন দশক পেরিয়ে যাওয়ার পরেও সেই বিজ্ঞাপন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। ‘Cadbury Girl’ এর ঠিকুজি কুষ্ঠি জানার জন্য ব্যাগ্র সকলে।

চেন্নাইয়ের শিক্ষাবিদ, সাঁতারু এবং অভিনেত্রী কাব্য ১৯৯৪ সালে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬০-এর এক সত্যি ঘটনা থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে ad agency Ogilvy এই বিজ্ঞাপনটি তৈরি করেছিল। নিরাপত্তাবেষ্টনী ভেঙে মাঠে ঢুকে Abbas Ali Baig-এর গালে চুমু খেয়েছিলেন একজন মহিলা অনুরাগী। সেই ইমোশনকেই ক্যামেরা পর্দার সামনে তুলে ধরা হয়েছিল এই বিজ্ঞাপন মারফত।

বিজ্ঞাপনের রিমেকের পরই নেটপাড়ার নতুন ক্রাশ হয়ে ওঠেন ‘Cadbury Girl’ কাব্য। বিজ্ঞাপনের কাজ শুরু হওয়ার আগে কাস্টিং ডিরেক্টর রেফারেন্সের জন্য পুরনো বিজ্ঞাপনটি তার কাছে পাঠান। বিজ্ঞাপনের প্রেক্ষাপট গল্প একই রেখে শুধুমাত্র চরিত্রগুলোতে বদল আনা হয়েছে। নব্বইয়ের দশকে যেখানে পুরুষ ক্রিকেটারকে কেন্দ্র করে মহিলার উন্মাদনা দেখানো হয়েছিল, আজ সেখানে দাঁড়িয়ে রয়েছেন একজন মহিলা ক্রিকেটার। যাকে ঘিরে পুরুষ অনুরাগীর উন্মাদনা দর্শকের মন ছুঁয়েছে।

আজ থেকে তিন দশক আগে এমন দৃশ্যের কথা হয়তো কল্পনাও করা যেত না। কিন্তু এখন যুগ বদলানোর সাথে সাথে মানুষের মানসিকতা পাল্টিয়েছে। এখন মাঠে বিরাট-রোহিত শর্মাদের ক্রিকেটের পিচের ঝড় তুলতে দেখে যতটা উৎসাহিত হন দর্শক, মহিলা ক্রিকেটারদের নিয়েও তারা ঠিক ততটাই আশাবাদী। কাজেই লিঙ্গবৈষম্যের মূলে সজোরে আঘাত এনেছে এই বিজ্ঞাপন। নতুনত্বের ছোঁয়ায় আবারো অভিনবত্বের আস্বাদ নিয়ে হাজির ক্যাডবেরি।