অত্যাধিক পরিমাণ কাজু বাদাম খেলে শরীরে কি কি প্রভাব পরে জেনে নিন

22
অত্যাধিক পরিমাণ কাজু বাদাম খেলে শরীরে কি কি প্রভাব পরে জেনে নিন

কাজু বাদাম ভালো, তবে বেশি খেলে বিপদও ডাকে। পড়ুন সেলিব্রেটি পুষ্টিবিদের পরামর্শ। দেশে কিডনির সমস্যায় আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা খুব একটা কম নয়। দিনে দিনে বেড়েই চলছে এর সংখ্যাটা। কিডনিতে পাথরের সমস্যা থাকলে কাজু খাওয়া কখনই উচিত নয় বলে মনে করেন সেলিব্রেটি পুষ্টিবিদ Pooja Makhija।

যে কোন কিছুর অত্যধিক পরিমাণ ভালো নয়। এই নিয়ম সেই সব খাবারের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য যা আমরা সাধারণত স্বাস্থ্যকর বলে মনে করেন।

উদাহরণস্বরূপ বাদাম বা শুকনো ফল। কিডনিতে পাথরের সমস্যা থাকলে এই খাবার খাওয়া কখনই উচিত নয় বলে মনে করেন সেলিব্রেটি পুষ্টিবিদ Pooja Makhija। এই তালিকায় কাজু বাদামকেও গণ্য করা হয়।

কারণ এগুলোতে প্রচুর পরিমাণে অক্সালেট থাকে, যা খাবারে পাওয়া জৈব স্ফটিক এবং তারা ক্যালসিয়ামকে আপনার শরীরে শোষিত হতে বাধা দেয়। এমনটাই বললেন সেলিব্রিটি পুষ্টিবিদ Pooja Makhija।

তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট শেয়ার করেছেন,যেখানে মানুষকে অবহিত করেছেন যে যখন অতিরিক্ত পরিমাণে কাজু খেলে আমাদের স্বাস্থ্যের উপর কী প্রভাব পড়ে? আমাদের দেশে কিডনির সমস্যায় আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা খুব একটা কম নয়। দিনে দিনে বেড়েই চলছে এর সংখ্যাটা। বর্তমানে কিডনি স্টোন বা বৃক্কে পাথর জমার সমস্যা এখন প্রায়ই শোনা যায়। কিডনি সমস্যাগুলির মধ্যে অন্যতম হল কিডনিতে স্টোন বা পাথর হওয়ার সমস্যা। তবে কিডনিতে স্টোন বা পাথর হওয়ার সম্ভাবনা বাড়িয়ে দেয় বেশ কিছু খাবার। যা আমরা অজান্তেই প্রতিনিয়ত খেয়ে থাকি।

পূজা মাখিজা জানিয়েছেন, ‘আমি আপনাদের সবাইকে প্রতিদিন প্রচুর জল পান করার পরামর্শ দেব। এটি স্বাস্থ্যকর তরল যা আপনি খেতে পারেন। এটি আমাদের প্রস্রাবকে পাতলা করতে সাহায্য করে যাতে সমস্ত বর্জ্য এবং অতিরিক্ত ক্যালসিয়াম একসাথে বেরিয়ে যায়। আপনি যদি প্রচুর জল পান করতে থাকেন, তাহলে আপনার শরীরে স্ফটিক জমা হবে না। তাই মনে রাখবেন, সবসময় নিজেকে হাইড্রেটেড রাখুন।’