জেনে নিন শঙ্খ ৩ বারের বেশি বাজালে কি বিপদ হতে পারে

9
জেনে নিন শঙ্খ ৩ বারের বেশি বাজালে কি বিপদ হতে পারে

শঙ্খ হল এক ধরণের সামুদ্রিক শামুক জাতীয় প্রাণী। এর বৈজ্ঞানিক নাম “turbinella pyrum “। হিন্দু সংস্কৃতির সঙ্গে শঙ্খের যোগ আজকের নয়। হিন্দু ধর্মে ৩৩ কোটি দেবতার কথার উল্লেখ আছে। আর এই নিত্যপূজায়, পার্বণে ধর্মের রীতি অনুযায়ী বিশেষ কিছু উপাচার ব্যবহৃত হয়ে থাকে যার মধ্যে শঙ্খ অন্যতম।

শঙ্খ কিন্তু তিনবার বাজানো হয়। তিনবারের বেশি বাজানো হয় না। কিন্তু জানেন কি, শঙ্খ কেন তিনবার বাজানো হয়? ৩ বারের বেশি কেন বাজানো হয় না? চলুন এই বিষয়ে আজকে আলোচনা করা যাক

হিন্দু বাড়িতে প্রতিদিন সকাল এবং সন্ধ্যার সময় তিনবার করে শঙ্খ বাজানো হয়। শঙ্খ তিনবারের কম বা বেশি বাজালে ভগবান অসন্তুষ্ট হন। ভগবান অসন্তুষ্ট হয়ে তিনি অসারিক শক্তিকে আহ্বান করেন তাতে সংসারে ক্ষতি হয় তাই তিনবার করে শঙ্খ বাজানো উচিত।

আবার শাস্ত্রে বলা হয় যে, ৩ বার শঙ্খ বাজালে ব্রহ্মা, বিষ্ণু ও মহেশ্বর এই তিন দেবতার সাথে সমস্ত দেবদেবীদের আমন্ত্রণ করা হয়। কিন্তু তিনবারের বেশি শঙ্খ বাজালে দেবের সাথে দানব বা অসুরকে আহ্বান করা হয়।

হিন্দু ধর্ম শাস্ত্র অনুযায়ী, সমুদ্র মন্থনের সময় অসুররা চারবার শঙ্খধ্বনি করে “বলি অসুর” কে জাগ্ৰত করেছিল। তাই, তিনবারের বেশি শঙ্খ বাজালে সৃষ্টি, স্থিতি ও বিনাশের দেবতা মহাদেব, বিষ্ণু, ব্রহ্মার পাশাপাশি আসুরি শক্তিও আমন্ত্রিত হয়ে গৃহে প্রবেশ করবে ফলে গৃহে উপর কুপ্রভাবের সৃষ্টি হবে। এই সমস্ত কারণেই শাস্ত্রে তিনবার শঙ্খ বাজানোর কথা উল্লেখ আছে।