জেনে নিন বুদ্ধপূর্ণিমা সম্পর্কে কিছু অজানা কথা

10
জেনে নিন বুদ্ধপূর্ণিমা সম্পর্কে কিছু অজানা কথা

আজ বুধবার, আজ বুদ্ধপূর্ণিমা। দিনটা হয়তো আমাদের অনেকেরই মনে নেই কারণ আজ ঘূর্ণিঝড় আমাদের রাতের ঘুম উড়িয়ে দিয়েছে। তবে বিপদের দিনে আজ চলুন ভগবান বুদ্ধ কে একটু স্মরণ করে নেওয়া যাক। ৫৮৮ খ্রিস্টপূর্বাব্দের এই দিনে এই দিনে তিনি মহা নির্বাণ লাভ করেছিলেন। বৈশাখ মাসের এই দিনটিকে আমরা বুদ্ধ পূর্ণিমা বলে জানি।

চলুন আজকে জেনে নেওয়া যাক পূর্ণিমা শুরু এবং শেষের সম্পূর্ণ নির্ঘণ্ট।–পূর্ণিমা তিথি আরম্ভ–বাংলা– ১০ জ্যৈষ্ঠ, মঙ্গলবার। ইংরেজি– ২৫ মে, মঙ্গলবার। সময়– রাত ৮টা ৩১ মিনিট। পূর্ণিমা তিথি শেষ – বাংলা– ১১ জ্যৈষ্ঠ, বুধবার। ইংরেজি– ২৬ মে, বুধবার। সময়- বিকেল ৪টে ৪৪ মিনিট।

এই দিনটি অত্যন্ত শুভ যোগ বলে মনে করা হয়। এই দিনে যদি কোন কাজ করা হয় তাহলে সেটি শুভ বলে মনে করা হয়। এমনকি কোনো নির্দিষ্ট শুভ কাজ করার জন্য এই দিনটিকে বেছে নেওয়া হয়। বুদ্ধ পূর্ণিমার দিন রাত ১০ টা ৫২ পর্যন্ত শিব যোগ রয়েছে।

এরপর শুরু হবে সিদ্ধি যোগ। সংসারে শান্তি আনার জন্য এবং বিপর্যয় দূর করার জন্য কয়েকটি টোটকা পালন করতে পারেন আপনি আজকে। চেষ্টা করেন বাড়িতে আমিষ রান্না করার জন্য। পারলে সারা দিন উপবাসে থাকুন। উপবাস ভঙ্গ করার সময় করবেন চন্দ্রদেবের আরাধনা। মনের বাসনা তাকে জানিয়ে জল অর্পণ করুন।

এইদিন পাঁচটা ন বছরের বয়সের শিশুকে খাওয়ানোর খুবই শুভ বলে মনে করা হয়। সন্ধ্যায় ছাদের চার কোণায় চারটি সরষের তেলের প্রদীপ জ্বেলে রাখুন। এই দিন নিজের রাশি লগ্ন অনুযায়ী রঙিন পাথর ভালো করে গঙ্গা জলে ধুয়ে ঠাকুরের কাছে পুজো দিয়ে দিন। তারপর সেটি টাকা রাখার জায়গায় রেখে দিন। তাহলেই দেখবেন আপনার জীবনের সমস্ত দুঃখ দুর্দশা দূর হয়ে গেছে।