জানুন কোন কোন ক্ষেত্রে মদ্যপান করলে উপকার পাওয়া যায়

68
জানুন কোন কোন ক্ষেত্রে মদ্যপান করলে উপকার পাওয়া যায়

মদ্যপান এবং ধূমপান শরীরের পক্ষে ক্ষতিকারক। অবশ্যই যদি সেটি অতিরিক্ত পরিমাণে আপনি পান করে থাকেন। কিন্তু অল্প পরিমাণে যদি অ্যালকোহল খান তাহলে আপনার শরীরের বেশ কিছু উপকার হতে পারে। সুরা পান করলে আপনার শরীর থেকে টক্সিন বেরিয়ে যেতে পারে খুব সহজে। গবেষণা বলছে, প্রত্যেকদিন একটি করে ড্রিঙ্ক যদি আপনি বরাদ্দ করেন তাহলে আপনার শরীরের সমূহ উপকার হতে পারে।

তাই একটি ড্রিংক কতখানি হতে পারে? একটি ড্রিঙ্ক মানে ৩৫৫ মিলিলিটার বিয়ার, ১৪৮ মিলিলিটার ওয়াইন, ৪৫ মিলি লিটার যে কোন লিকর। একটি করে ড্রিঙ্ক খেলে কি ধরনের উপকার পাওয়া যেতে পারে চলুন জেনে নেওয়া যাক।

২০১৮ সালের একটি গবেষণা অনুযায়ী, যারা অল্প পরিমাণে মদ্যপান করেন, তাদের মৃত্যুর আশঙ্কা অনেকখানি কমে যায়। যারা মদ্যপান একেবারে করেন না, তাদের তুলনায় অন্তত ২৫ শতাংশ কম হয় যারা প্রত্যেকদিন মদ্যপান করেন তাদের মৃত্যুর হার।

তবে খুব বেশী মদ্যপান করলে গুরুতর হৃদরোগ হতে পারে। অল্প পরিমাণে মদ্যপান করলে হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের সম্ভাবনা অনেকখানি কমে যায়। অল্প পরিমাণে অ্যালকোহল লাইপোপ্রোটিন কোলেস্টরলের মাত্রা বাড়িয়ে দেয় যা শরীরের পক্ষে খুবই ভালো। অন্য একটি গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, খুব অল্প পরিমাণে আলকোহল শরীরের বাকি বিষাক্ত পদার্থ বের করে দেয়, তাই কিডনিতে পাথর জমার সম্ভাবনা কম হয় তাদের ক্ষেত্রে।

এবার সবশেষে আসি মনের কথাতে। মন খারাপ হলেই মদ্যপান করার কথা মনে পড়ে যায়। তবে আপনি হয়তো জানেন না, মনের জন্য এই মদ্যপান খুবই উপকারী। যারা মাঝে মাঝে বন্ধুদের সঙ্গে হইহই করে মদ্যপান করেন তাদের মনের ওপর খারাপ প্রভাব কমে যায়।

তবে অবশ্যই এই উপকার পাওয়ার জন্য প্রত্যেকদিন মদ্যপান করলে চলবে না। মেপে মদ্যপান না করলে কিন্তু হতে পারে সমূহ বিপদ। তাই উপকার পেতে গেলে নিজেকে আবদ্ধ করে রাখতে হবে গণ্ডি সীমার মধ্যে, না হলে উপকারের জায়গায় অপকার হয়ে যাবে।