কার লোনের উপর টপ-আপ লোন কী ভাবে পাওয়া যায় জানুন!

12
কার লোনের উপর টপ-আপ লোন কী ভাবে পাওয়া যায় জানুন!

যদি কোনও ব্যাঙ্ক অথবা ঋণদাতা সংস্থা থেকে গাড়ি ঋণ বা কার লোন নেওয়ার পর কোনও গ্রাহক হঠাৎই কোনও ব্যক্তিগত প্রয়োজনে টাকার দরকার হতে পারে। যার ফলে গ্রাহকের আরও টাকার দরকার পড়বে। সে ক্ষেত্রে কী করবেন ওই গ্রাহক? এর খুব সহজ উপায় রয়েছে।

কারণ খুব সহজেই ওই গ্রাহক বিদ্যমান গাড়ির ঋণ বা কার লোনের উপর টপ-আপ লোন নিতে পারবেন। এই লোনের সব থেকে বড় সুবিধা হল, পুনরায় অনুমোদনের জন্য অপেক্ষা করতে হয় না। যে হেতু ঋণদাতার কাছে আগে থেকেই ওই গ্রাহকের সমস্ত নথি রয়েছে এবং এক বার তাঁর আবেদনে লোনের জন্য অনুমোদন দিয়েছে, তাই পুনরায় ঋণের জন্য আর বেগ পেতে হয় না।

যদি গ্রাহকের কমপক্ষে ৯ মাসের EMI পরিশোধের রেকর্ডে কোনও দাগ না-থাকে, তবে বর্তমান কার লোনের মূল্যের ১৫০% পর্যন্ত টপ-আপ লোন তিনি পেতে পারেন। বিভিন্ন ঋণদাতার কাছে এই মাপকাঠি ভিন্ন ভিন্ন হতে পারে।

যেমন HDFC ব্যাঙ্কের বিদ্যমান কার লোনের উপর টপ-আপ লোন জেনে নিন।

HDFC ব্যাঙ্কের বর্তমান কার লোনের মূল্যের ১৫০% পর্যন্ত টপ-লোন হিসেবে পাওয়া যেতে পারে।

ব্যাঙ্কের এই টপ-আপ লোনের সুবিধা পেতে হলে গ্রাহকের কমপক্ষে ৯ মাসের মাসিক কিস্তি পরিশোধের রেকর্ড ভালো থাকতে হবে। বিদ্যমান গাড়ির লোনের EMI শোধের স্টেটমেন্ট পরিষ্কার থাকতে হবে।

এই টপ-আপ লোনে ব্যাঙ্ক গ্রাহককে কত টাকা পর্যন্ত ঋণ হিসেবে প্রদান করবে, তা অনেকগুলি বিষয়ের উপর নির্ভর করে। বর্তমান লোন পরিশোধের রেকর্ড, বয়স, গাড়ির মডেল এবং লোনের প্রয়োজনীয়তা ইত্যাদির ওপর ভিত্তি করে নির্ধারণ করা হয় লোনের অর্থরাশি।

গ্রাহক যদি অন্য কোনও ব্যাঙ্কের কাছে কার লোন নিয়ে থাকেন, সে ক্ষেত্রেও HDFC ব্যাঙ্ক ওই গ্রাহককে টপ-আপ লোন ঋণ প্রদান করবে। যাঁদের HDFC ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট আছে, একমাত্র তাঁরাই এই সুবিধা পাবেন। HDFC ব্যাঙ্কের নেটব্যাঙ্কিং পেজে লগিন করে বা HDFC ব্যাঙ্কের ATM ব্যবহার করে বিদ্যমান কার লোনের ওপর টপ-আপ লোনের আবেদন করতে পারবেন।