ত্রিপুরার মাটিতে কাশ্মীরি আপেল আপেল চাষ করে লাভবান কৃষকরা!

8
ত্রিপুরার মাটিতে কাশ্মীরি আপেল আপেল চাষ করে লাভবান কৃষকরা!

প্রথমে কেউ ভাবতেই পারেননি ত্রিপুরার মাটিতে যে আপেল বির চাষ হতে পারে তা। এমনকি ভাবতে পারেননি জীবন দাসও। কিছুটা সন্দেহ মনে রেখেই খোয়াই জেলার তেলিয়ামুড়ার নয়নপুর গ্রামের জীবন শুরু করেন এই চাষ।

ত্রিপুরার মাটিতে কাশ্মীরি আপেল আপেল চাষ করে লাভবান কৃষকরা। তাতেই ফিরেছে তাঁর ভাগ্য। মিষ্টতা এবং অন্যন্য স্বাদের জন্য পরিচিত আপেল বির। ত্রিপুরার রুক্ষ মাটিতে এই ফল উৎপাদন করছেন জীবন। জীবন দাস একজন ছোট চাষি। কিন্তু তিনি বরাবরই কিছুটা ব্যতিক্রমী হিসাবেই এলাকায় পরিচিত। অনেক রকম ফসল লাগিয়েছেন তিনি।

জীবন দাস পরীক্ষামূলক ভাবেই সেই চাষ করেছেন। তারপরেই তাঁর মনে হয় সেখানে আপেল চাষ করার। পরিকল্পনা করার পরে কী করে এই চাষ করা যায় তা নিয়ে খোঁজখবর নিতে শুরু করেন তিনি।

আর তিনি এবার এই চাষ করেই ভালো লাভ করেছেন । তিনি জানান, মাস আটেক আগে তাঁর তিন কানি জমিতে আপেল চাষ শুরু করেন তিনি। এখন সেই সব গাছ ভরে গিয়েছে পাকা আপেলে। জীবন দাস জানান, গত কয়েক বছরে তিনি লক্ষ্য করেন যে স্থানীয় বাজারে চাহিদা বাড়ছে Apple Ber-এর। আগেও ত্রিপুরার কয়েকজন এই আপেল চাষ করেছেন।

তাঁর মতে, এটা খুবই লাভজনক চাষ। তাই এটা সেখানের বেকারি কমাতে এবং যুবকদের আয়ের সংস্থান হতে পারে। তিনি জানান, একটি গাছ বড় হয়ে ৪০ কেজি পর্যন্ত ফল দিতে পারে। পাইকারি বাজারে Apple Ber বিক্রি হয় ১২০টাকা থেকে ১৪০ টাকা হিসাবে। আর খোলা বাজারে বা খুচরো হিসাবে ২০০ থেকে ২৫০ টাকা কেজি হিসাবে বিক্রি করা হচ্ছে এই ফল।