অভিনেত্রী শ্রীলেখার ছবি দিয়ে ফেসবুকে ভুয়ো অ্যাকাউন্ট, মেজাজ হারালেন অভিনেত্রী

9
অভিনেত্রী শ্রীলেখার ছবি দিয়ে ফেসবুকে ভুয়ো অ্যাকাউন্ট, মেজাজ হারালেন অভিনেত্রী

চিরকাল সাহসী নায়িকা হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন শ্রীলেখা মিত্র। তার সোজাসাপ্টা কথা অনেকেই সহ্য করতে পারে না। চলতি বছরে মিরাক্কেল এর মত রিয়ালিটি শো থেকে বাদ পড়ে গেছেন শ্রীলেখা মিত্র। এই নিয়ে বহু গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়াতে। এই বছর মীরাক্কেলের নতুন প্যাটার্ন পছন্দ করে নি অনেকেই। সোশ্যাল মিডিয়াতেও শ্রীলেখা মিত্র ভীষণভাবে একটিভ। কখন এক্সেসাইজ করছেন, কখনো আবার বাড়িতে বসেই আড্ডা মারছেন সকলের সাথে। প্রায় সবকিছুই তিনি ফেসবুকে আপলোড করেন। সবসময় যোগাযোগ রাখার চেষ্টা করেন ভক্তদের সঙ্গে। তবে সম্প্রতি একটি ঘটনা তাকে খুবই বিরক্ত করেছে। একজন অপরিচিত ব্যক্তি তার কিছু ছবি নিয়ে ফেসবুকে ভুয়া অ্যাকাউন্ট খুলেছেন।

প্রথমে শ্রীলেখা ব্যাপারটি জানতেন না। এরপর যখন তিনি জানতে পারেন, তখন স্বাভাবিক ভাবেই তিনি রেগে যান। অ্যাকাউন্টটি দীর্ঘদিন আগে খোলা হয়েছিল। তবে অ্যাকাউন্টটিতে শ্রীলেখার নাম নেই। শ্রীলেখার পরিবর্তে নাম লেখা রয়েছে একজন পুরুষ মানুষের। তার নাম দেবাশীষ ঘোষ।

তবে কেন একজন পুরুষ শুধুমাত্র শ্রীলেখার ছবি নিয়ে ফেসবুকে অ্যাকাউন্ট খুলল? এই নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন করেছেন। যদি শ্রীলেখার ছবি নিয়ে অ্যাকাউন্ট খুলতে হত, তাহলে সেখানে মানানসই কোন মেয়ের নাম ব্যবহার করতে পারতেন। কেন একজন ছেলের নাম ব্যবহার করে শ্রীলেখার ছবি ব্যবহার করলেন এই নিয়ে অনেকেই দ্বন্দ্বে পড়ে গেছেন।

এই একাউন্টের বিষয়ে জানার পর অভিনেত্রী রীতিমতো রেগে গিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করে দেখেন যে,”আমার নাম দেবাশীষ ঘোষ কবে থেকে হল? এই বেজন্মা বিরুদ্ধে সবাই রিপোর্ট করো”। তার রেগে যাওয়া যথেষ্ট কারণ আছে। একজনের ছবি নিয়ে প্রোফাইল খোলার পর কি কি কান্ড হতে পারে, সেটা আমরা সকলেই জানি। শ্রীলেখার তরফ থেকে সবাইকে অনুরোধ করা হয়েছে, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই ভুয়া অ্যাকাউন্টের বিরুদ্ধে রিপোর্ট করার। সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন যে, তিনি যথেষ্ট দায়িত্ব নিয়ে এই ধরনের ভাষায় এই মানুষটিকে সম্বোধন করেছেন। এরপর তাকে নিয়ে কেউ কোন কথা বলতে পারবে না।

বিখ্যাত মানুষের ছবি অথবা ঠিকানা নিয়ে ভুয়া অ্যাকাউন্ট খোলা নতুন কোন ঘটনা নয় ফেসবুকে। এর আগে রাজ চক্রবর্তী, সব্যসাচী চক্রবর্তী এইরকম ঘটনার সম্মুখীন হয়েছিলেন। তারা তাদের আসল একাউন্ট থেকে এসে কথা জানিয়েছিলেন সকলকে। এবার পালা শ্রীলেখা মিত্রর। এই ব্যাপারে শ্রীলেখা মিত্র কে অবিলম্বে ডিপার্টমেন্টে যোগাযোগ করার কথা বলেছেন অনেকেই।