অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের কারণে বন্যার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ এবং ঝাড়খন্ডে

9
অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের কারণে বন্যার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ এবং ঝাড়খন্ডে

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট গভীর নিম্নচাপ ইতিমধ্যেই তার শক্তি হারিয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের মোড় ঘুরে গিয়েছে ঝাড়খণ্ডের দিকে। তবে ঘূর্ণিঝড় তার শক্তি হারালেও ঝাড়খন্ডসহ পশ্চিমবঙ্গের নয়টি জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে। বৃষ্টিপাতের কারণে পশ্চিমবঙ্গ সহ বিভিন্ন রাজ্যের একাধিক জেলায় নদীতে জল স্তর বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই ঝাড়খণ্ডের একাধিক জেলায় হাই এলার্ট জারি করেছে সেই রাজ্যের প্রশাসন।

অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের কারণে বন্যার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ এবং ঝাড়খন্ডে। ঝাড়খণ্ডের প্রবল বৃষ্টিপাতের কারণে বীরভূমের মহঃবাজার সহ একাধিক এলাকা জলমগ্ন হয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রশাসনের। ঝাড়খন্ড জলমগ্ন হলে সেই রাজ্যের সেচ দপ্তর একাধিক জলাধার থেকে জল ছাড়তে পারে। সেই জল সরাসরি পশ্চিমবঙ্গে প্রবেশ করে থাকে। এ ফলে পশ্চিমবঙ্গেও বন্যার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির দরুন সতর্কবার্তা হিসেবে পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, বীরভূম, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রামে বন্যার সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে। পাশাপাশি হাওড়া, হুগলি, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, নদীয়াতেও বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টিপাতের কথা জানানো হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের পাশাপাশি ঝাড়খন্ডেও একাধিক জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা জানানো হয়েছে।

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপ থেকে যে প্রবল ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি হয়েছে সেই ঘূর্ণিঝড়ের কারণে পশ্চিমবঙ্গ এবং উড়িষ্যার উপকূলবর্তী অঞ্চল ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের আফটার ইফেক্ট হিসেবে এবার রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে বন্যার সম্ভাবনাও দেখা দিয়েছে। পশ্চিমবঙ্গ এবং ঝাড়খন্ডের একাধিক নদী বিপদসীমার উপর দিয়ে বইছে। পরিস্থিতি এমনই চললে বানভাসি হবে পশ্চিমবঙ্গ।