সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে বেশ কিছু লাভের কারণ উল্লেখ করছেন বিশেষজ্ঞরা! দেখে নিন

12
সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে বেশ কিছু লাভের কারণ উল্লেখ করছেন বিশেষজ্ঞরা! দেখে নিন

কথায় আছে পুরনো চাল ভাতে বাড়ে। এই কথাটি কিন্তু পুরনো গাড়ির ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। আজকাল বাজারে লক্ষ লক্ষ কোটি কোটি টাকা দামের গাড়ি কিনতে পাওয়া যায়। তবে কোটি টাকা মূল্যের গাড়ির পেছনে না ছুটে যদি সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি কিনতে পারেন তাহলে লাভ কিন্তু আপনারই। এর বেশ কিছু কারণ উল্লেখ করছেন বিশেষজ্ঞরা। প্রথমত, পুরনো গাড়ি কেনার পর তাকে নতুন করে সাজাতে লাগবেনা। গাড়ি কেনার পর সে ক্ষেত্রে যে বাড়তি খরচ হয় তা হবেনা।

দ্বিতীয়ত এবং সবথেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো দ্বিতীয় গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে সাশ্রয় হবে সব থেকে বেশি। কারণ তিন বছর অন্তর প্রতিটি গাড়ির দাম অন্ততপক্ষে ৬০ শতাংশ হারে কমে যায়। যদি চেনা-পরিচিত কারোর থেকে গাড়ি নেন তাহলে কিন্তু ঠকে যাওয়ার আশঙ্কাও কম থাকছে। তবে পুরনো গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে অবশ্যই বাড়তি সতর্ক থাকা প্রয়োজন।

নতুন গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন চার্জ, আরটিও, রোড ট্যাক্সসহ বেশ কিছু অতিরিক্ত খরচা হয়। সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি কিনলে এই সব খরচ হবে না। শুধু গাড়ির দাম টুকু দিলেই চলবে। প্রসঙ্গত, সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ির বয়স যদি পাঁচ বছরের কম হয় তাহলে সে ক্ষেত্রে আপনি ওয়ারেন্টি পেয়ে যাবেন। বহু সংস্থা আবার সাত বছর পর্যন্ত ওয়ারেন্টিও দেয়। অতএব লাভ সবদিক থেকেই হচ্ছে।

সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে নতুন গাড়ি কেনার তুলনায় টাকা যেমন অনেক কম লাগছে তেমনই গাড়ী বিক্রেতার সঙ্গে কথা বলে আপনি গাড়ি টাকা পরিশোধের কিস্তির মেয়াদ ঠিক করে নিতে পারবেন। নতুন গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে সেই সুযোগ নেই।