“দামে কম মানে ভালো কাকলি ফার্নিচার” ব্যাপক ভাইরাল ভিডিও

17

জাত টা যখন বাঙালি, তখন কোন মহামারী অথবা ঘূর্ণিঝড় তাকে সহজে কাবু করতে পারে না। মহামারীর প্রকোপে যখন সারা বিশ্ব অসহায়ের মত এদিক ওদিক দৌড়ে বেড়াচ্ছে, তখনো গত বছর বাঙালি মেতে ছিল রানু মন্ডল অথবা ডালগোনা কফি নিয়ে। তাদের একটাই কথা, মরতে তো একদিন না একদিন হবেই, তা সে মহামারীতে হোক অথবা ঘূর্ণিঝড়ে।

তাই বছর ঘুরতে না ঘুরতে যখন আরো একবার মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ আমাদের কাবু করছে, তখনো কোথাও-না-কোথাও প্রাণভরে স্বস্তির নিঃশ্বাস পাবার জন্য আমরা সোশ্যাল মিডিয়ার দ্বারস্থ হচ্ছি। প্রতিনিয়ত আমরা খুঁজে বেড়াচ্ছি এমন কোন হাসির খোরাক যা আমাদের সামান্য হলেও বেঁচে থাকার রসদ দিতে পারবে।

খুঁজলে তো ঈশ্বরকেও পাওয়া যায়, এটা সামান্য হাসির রসদ। এটা খুঁজে পাওয়া এমনকি কঠিন কাজ। তাই লকডাউনের মধ্যে নিজেদের প্রাণ খোলা হাসির যোগাড় করে ফেলল বাঙালি একটি বিজ্ঞাপনের হাত ধরে। সম্প্রতি সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়েছে কাকলি ফার্নিচার এর একটি ভিডিও। ভিডিওটি অন্য সমস্ত ফার্ণিচারের বিজ্ঞাপন এর মতই একই ভিডিও।

ভিডিওতে একটিমাত্র বিশেষত্ব রয়েছে যে, ভিডিওটি একেবারে অন্যরকম ভাবে দেখানো হয়েছে। একই কথা প্রায় শতাধিক ভাবে বলা হয়েছে এই ভিডিওতে। দামে কম মানে ভালো কাকলি ফার্নিচার। কথাটি যেনো নেটিজেনদের মুখে মুখে শোনা যাচ্ছে। যে যেমনভাবে পারছে এটিকে ট্রল করার চেষ্টা করছে। সম্ভবত বাংলাদেশ এলাকায় তৈরি করা হয়েছে এই ভিডিওটি।

বিজ্ঞাপনের সঙ্গে দেওয়া রয়েছে কাকলি ফার্নিচার এর ঠিকানা ও। তার প্রধান শোরুম, মাওনা চৌরাস্তা, শ্রীপুর রোড, শ্রীপুর পৌরসভা গাজীপুর। তবে বিজ্ঞাপনের এইভাবে ভাইরাল হওয়া কিন্তু কাকলি ফার্নিচার এর কর্ণধারের জন্য লাভবান প্রমাণিত হতে পারে। বিজ্ঞাপন দেখেই হয়তো বহু মানুষ কাকলি ফার্নিচার থেকে তাদের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনতে পারেন। বাঙালির রসিকতার হাত ধরেই না হয় একজন ব্যবসায়ী তার ব্যবসার সূচনা করলো, তাতে আর মন্দ কি।