বিমানবন্দরে খনন কার্য করতে গিয়ে উদ্ধার হল ৬০টি বিশাল আকারের ম্যামথের হাড়

7
বিমানবন্দরে খনন কার্য করতে গিয়ে উদ্ধার হল ৬০টি বিশাল আকারের ম্যামথের হাড়

সম্প্রতি মেস্কিকো চিঠির উত্তরে নির্মাণাধীন বিমানবন্দরের কাজ করতে গিয়ে উদ্ধার করা হয়েছে ৬০টি বিশাল আকারের ম্যামথের হাড়। সংবাদ সংস্থা এপি একটি প্রতিবেদনে জানিয়েছেন যে, এগুলো মানুষের তৈরি একটি হ্রদের কাছে এগুলি আবিষ্কার করা হয়েছে। গতবছরও ওদের কাছে এক ডজনেরও বেশি ম্যামথের অস্তিত্ব পাওয়া দিয়েছিল।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি এন্ড হিস্টরির প্রত্নতান্ত্রিক পেড্রো সানচেজ নাভা জানিয়েছেন, “এখানে খনন কার্য করা গেলে আরো বহু প্রাণের সন্ধান পাওয়া যাবে”।

গত বছরের অক্টোবর মাসে, পুরনো সামরিক বিমান বন্দরকে বেসামরিক বিমান বন্দরে রূপান্তরিত করার কাজ শুরু করা হলে ইনস্টিটিউট সেখানে তিনটি বড় অগভীর জায়গায় খননকার্য শুরু করে। ৬ মাস ধরে খনন করার পর সেখানে পাওয়া যায় প্রায় ১০০ টিরও বেশি ম্যামথের হাড়। প্রায় প্রতি মাসে ১০ টি করে প্রাণীর হাড় এখান থেকে পাওয়া যায়।

বিমানবন্দর নির্মাণের প্রকল্প টি আগামী দুই বছরের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা আছে। বিমানবন্দরের কাছে অবস্থিত একটি প্রাচীন হ্রদের কাছে খনন কাজ শুরু করা হয়েছিল। মনে করা হয়, বহু বছর আগে এই গভীর হ্রদে প্রচুর পরিমাণে ঘাস এবং নলখাগড়া উৎপাদন করা হতো, যা খাবার জন্য সেখানে বিশাল আকারে ম্যামথ গুলো ভিড় করত। প্রতিদিন প্রায় দেড়শ কেজির মতো খাবার খেতে পারে ম্যামথ। এই হ্রদ ম্যামথ দের কাছে ছিল তাই স্বর্গের মত। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, পৃথিবীর বুক থেকে ১০ হাজার বছর আগে ম্যামথ নামের প্রাণীটি বিলুপ্ত হয়ে যায়।