এই ছিন্নমস্তার মূর্তি থেকে আজও অনবরত বের হতে থাকে রক্ত

43
এই ছিন্নমস্তার মূর্তি থেকে আজও অনবরত বের হতে থাকে রক্ত

প্রায় ৩৩ কোটি আরাধ্য দেবতা রয়েছেন ভারতের। এদের মধ্যে দশমহাবিদ্যার অন্যতম দেবী হলেন দেবী ছিন্নমস্তা। অত্যন্ত ভয়ঙ্কর তার রূপ। নগ্ন অবস্থায় মৈথুনরত দিব্য যুগলের উপর দণ্ডায়মান দেবী এক হাতে থাকে কর্তৃকা (তরবারী বিশেষ) ধারণ করেন। সেই কর্তৃকা দ্বারাই নিজের মস্তক ছিন্ন করে অপর হাতে তা ধারণ করেন দেবী। তার কন্ঠনালী নিঃসৃত তিনটি রক্তধারা দেবী ছিন্নমস্তা এবং তার দুই ডাকিনী সহচরী পান করে থাকেন!

এমনই ভয়ঙ্কর একটি মূর্তি রয়েছে ঝাড়খণ্ডের রাজারাপ্পা মন্দিরে। দামোদর এবং ভৈরবী নদী পেরিয়ে প্রতিদিন বহু দর্শক এবং ভক্ত দেবী ছিন্নমস্তাকে দর্শন করতে আসেন। ভক্তদের বিশ্বাস, দেবীর এই মূর্তি থেকে নাকি অনবরত রক্ত বের হতে থাকে! এই বৈশিষ্ট্যের কারণে সারা বিশ্বজুড়ে খ্যাতি পেয়েছে রাজারাপ্পা মন্দিরটি।

উল্লেখ্য পশ্চিমবঙ্গের প্রতিবেশী রাজ্য অসমেও কিন্তু দেবী ছিন্নমস্তার একটি মন্দির রয়েছে। ভারতবর্ষের মধ্যে অসমের মূর্তিটি সর্ববৃহৎ। তার পরেই দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছে রাজারাপ্পা মন্দিরের ছিন্নমস্তার মূর্তি। এই মন্দিরটির গা ছমছমে আবহাওয়া দর্শনার্থীদের রোমাঞ্চিত করে।

রাজারাপ্পা মন্দিরের ঠিক পাশেই রয়েছে দুটি উষ্ণ জলাধার। যার জল অত্যন্ত পবিত্র বলে মনে করা হয়। এই জলে স্নান করলে সকল রোগ ব্যাধি দূর হয় বলে বিশ্বাস করেন ভক্তরা। ভক্তদের বিশ্বাস মন্দিরটিকে রক্ষা করেছেন স্বয়ং ভগবান শিব।