পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হলেও তা সাংবিধানিক নিয়ম মেনে করা হবেঃ অমিত শাহ

4

আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের আগে বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হবে কিনা, সে বিষয়ে রাজনৈতিক মহলে জোর জল্পনা চলছে। উল্লেখ্য, বঙ্গের বিজেপি নেতারা ইতিপূর্বে বহুবার রাজ্য শাসকদলের নীতির বিরোধিতা করে কেন্দ্রের কাছে ভোটের আগে বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করার আবেদন জানিয়েছেন। এ বিষয়ে বিজেপির অবস্থান স্পষ্ট করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তিনি জানিয়ে দিলেন, বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হলে, তা সংবিধানের নিয়ম অনুসারেই হবে।

শনিবার সন্ধ্যায় একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, বর্তমানে বাংলার আইন-শৃঙ্খলা বিঘ্নিত। পশ্চিমবঙ্গের পরিস্থিতি বিবেচনা করলে বোঝা যায়, সে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করার আবেদন একেবারেই অযৌক্তিক নয়। এ বিষয়ে সাংবাদিকরা তাকে প্রশ্ন করলেন, তবে কি সত্যিই রাষ্ট্রপতি শাসনের মধ্যেই বাংলার ভোট সম্পন্ন হতে চলেছে?

এর জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানালেন, কোনো জায়গায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করার জন্য নির্দিষ্ট কিছু সাংবিধানিক নিয়ম মেনে চলতে হয়। তাই পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হলেও তার সাংবিধানিক পদ্ধতি অনুসরণ করেই করা হবে। তিনি আরো জানালেন, এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট রাজ্যের রাজ্যপালের রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করেই রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করার সিদ্ধান্ত বিবেচনা করা হয়। তাই পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল যদি এ সংক্রান্ত কোনো রিপোর্ট পেশ করেন, তবে তা অবশ্যই বিবেচনা করবে কেন্দ্র।

উল্লেখ্য, মুখে বারবার রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করার কথা বললেও, রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে বিচার করলে ভোটের আগে বিজেপি কখনোই পশ্চিমবঙ্গে ৩৫৬ ধারা জারি করতে চাইবে না। কারণ সে ক্ষেত্রে রাজ্যের শাসক দল অধিক সহানুভূতি পেতে পারেন। তাই, কৈলাস বিজয়বর্গীয়, বাবুল সুপ্রিয়রা মুখে যতই বঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করার পক্ষে সফল করুন, কেন্দ্রীয় শাসকদলের তরফ থেকে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা মানে ভোটের আগে বাংলার মানুষের কোপের মুখে পড়া।