নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার পরেও মাত্র হাতে গোনা কয়েকজন চিকেন কেনার গ্রাহক

4
নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার পরেও মাত্র হাতে গোনা কয়েকজন চিকেন কেনার গ্রাহক

ভারত বর্ষ জুড়ে করোনার পর আবারও প্রাদুর্ভাব ঘটেছে বার্ড ফ্লু এর। বার্ড ফ্লু এর জেরে বেশ কয়েক দিন আগে এশিয়ার সবচেয়ে বড় চিকেন মান্ডি গাজিপুর চিকেন বিক্রি ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। আজ চারদিন হল গাজিপুর মান্ডি চিকেন বিক্রির ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে। আগে যেখানে চিকেন কেনার জন্য জনসাধারণের ভিড় পড়ে যেতো এখন সেখানে চিকেন কেনার গ্রাহক মাত্র হাতে গোনা কয়েকজন।

গ্রাহক কম হওয়ার কারণে চিকেন এর দাম কমেছে অনেকটাই। এখন রচনা পোলট্রি চিকেন পাওয়া যাচ্ছে ৯০ টাকা দরে ১২৫০ গ্ৰাম ওজনের। তবে একটি বিশেষ ভ্যারাইটির চিকেন এখন পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ৪৫ টাকা কিলো দরে৷ আবার অন্যদিকে চিকেন ললিপপ, ট্যাঙ্গরি, ফ্রেশ চিকেনের দরও কমছে অনেকটাই।

১৪০০ গ্রাম চিকেনের রেট দাঁড়িয়েছে ৮৫ টাকায়। ১৭০০ গ্রামের চিকেনের দাম ৭৬ টাকায়। ২.৫ কিলো চিকেনের দাম মাত্র ১৮৭ টাকা ৫০ পয়সা অন্যদিকে ৯০০ গ্রাম চিকেনের রেট ৬৫ টাকা৷

শনি -রবিবারে মাংসের দাম কম থাকলেও সোমবার একেবারে জলের দরে মাংস পাওয়া যাচ্ছিল গাজীপুর মান্ডি থেকে৷ চিকেনের রেট ৪৫ টাকা প্রতি কিলো হবার সাথে চিকেন টেঙ্গরি ও ললিপপের দামও কমছে অনেকটাই৷ আগে ট্যাঙ্গরি নম্বর ১১ – এর দাম ছিল প্রতি কিলোতে ১৯০ টাকা করে এখন সেটার দাম হয়েছে ১৫০ টাকা৷ এর আগে ১০ নম্বর ট্যাঙ্গরি পাওয়া যেত ১৮০ টাকা প্রতি কিলোতছ। এখন সেটার দাম ১৩০ টাকা প্রতি কিলোতে৷ এখন ৮ নম্বর ট্যাঙ্গরি্র দাম ১০০ টাকা -র নিচে নেমে পড়েছে৷