উত্তরপ্রদেশে চালু হলো ESMA আইন, আগামী ছয় মাস ধর্মঘট করতে পারবে না সরকারি দপ্তর এবং কর্পোরেট সংস্থাগুলি

18
উত্তরপ্রদেশে চালু হলো ESMA আইন, আগামী ছয় মাস ধর্মঘট করতে পারবে না সরকারি দপ্তর এবং কর্পোরেট সংস্থাগুলি

রাজ্যে ধর্মঘট পালন করতে গিয়ে যাতে উন্নয়ন থমকে না যায় সেই উদ্দেশ্যে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এক অভিনব উদ্যোগ গ্রহণ করলেন। উত্তরপ্রদেশে চালু হলো এসেনশিয়াল সার্ভিসেস মেইনটেনেন্স অ্যাক্ট তথা ESMA। এই আইনের আওতায় আগামী ছয় মাসের জন্য সরকারি দপ্তর এবং কর্পোরেট সংস্থাগুলি ধর্মঘটের পথে যেতে পারবে না। গত বুধবার থেকেই যোগীরাজ্যে এই নতুন অ্যাক্ট জারি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২৬শে নভেম্বর বামেদের ডাকা সর্বভারতীয় বনধ পালনে আগ্রহ প্রকাশ করেছিল রাজ্যের সরকারি সংগঠনগুলির একাংশ। ভবিষ্যতে এই ঘটনা এড়ানোর জন্যেই আগামী ছয় মাসের জন্য ধর্মঘট বিরোধী আইন জারি হলো উত্তর প্রদেশে। এই আইন অনুসারে ২০২১ সালের মে মাস পর্যন্ত সেখানে সরকারি দপ্তর এবং কর্পোরেশনের তরফ থেকে ধর্মঘটের আয়োজন করা যাবে না।

ESMA এর পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশে আগামী ১লা ডিসেম্বর পর্যন্ত ১৪৪ ধারাও জারি করা হয়েছে। উত্তরপ্রদেশের করোনা পরিস্থিতিই এর জন্য দায়ী। প্রশাসনিক দপ্তর সূত্রে খবর, করোনা সতর্কতা বিধি কঠোরভাবে মেনে চললেও উত্তর প্রদেশে করোনা সংক্রমনের হার বাড়ছে। বিশেষত রাজধানী লখনৌ শহরের পরিস্থিতি বিগত কয়েকদিনে বেশ গুরুতর হয়ে উঠেছে। ফলত, ১৪৪ ধারার পথেই এগিয়েছে জেলাশাসকের দপ্তর।

নিয়ম অনুযায়ী, সরকারি অনুমতি ছাড়া এখন কোনোভাবেই জমায়াতের আয়োজন করা যাবে না। রাজ্যপাল আনন্দীবেন প্যাটেলের সম্মতি নিয়েই ১৪৪ ধারার পথে এগিয়েছে প্রশাসন। নিয়ম অনুসারে, ESMA জারি থাকাকালীন সময়ে নিয়মের অন্যথা করলে অর্থাৎ ধর্মঘটের আয়োজন করলে ১০০০ টাকা পর্যন্ত জরিমানা দিতে হতে পারে। পাশাপাশি, প্রয়োজন বুঝলে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ছাড়াই পুলিশ গ্রেফতারও করতে পারে।