ভোট প্রচারে ব্যবহার করা যাবে না শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মাঠ! নির্দেশিকা দিল কমিশন

9
ভোট প্রচারে ব্যবহার করা যাবে না শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মাঠ! নির্দেশিকা দিল কমিশন

জাতীয় নির্বাচন কমিশন ভোটের প্রচার নিয়ে বড়সড় নির্দেশিকা দিল। এবার ভোটের প্রচারের কাজে ব্যবহার করা যাবে না স্কুল মাঠ। এমনকি নির্বাচনী প্রচারের সময় শাড়ি বা জামা বিলি করার ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

জাতীয় নির্বাচন কমিশন এদিন নির্বাচনী প্রচার আর ব্যক্তিগত সম্পত্তিতে প্রচার নিয়ে যে নির্দেশিকা পাঠিয়েছে, তাতে এমনই উল্লেখ রয়েছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার সচিব, প্রতিটি রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলের মুখ্যসচিব এবং প্রত্যেক রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিককে এই মর্মে চিঠি পাঠিয়েছে জাতীয় নির্বাচন কমিশন।

তাদের মাধ্যমে রাজনৈতিক দলগুলির কাছে কমিশনের এই বার্তা পৌঁছে দেওয়া হবে। জাতীয় নির্বাচন কমিশনের ওই নির্দেশিকায় স্পষ্টভাবে উল্লেখ করা হয়েছে স্থানীয় স্তরে যেমন নিয়ম-বিধি রয়েছে, তা মেনে রাজনৈতিক সভা, মিছিল করা যাবে। সভা কিংবা মিছিলে পতাকা, ব্যানার, কাট-আউটও স্থানীয় আইন মেনে করতে হবে। এই ধরনের কর্মসূচিতে টুপি, মাস্ক, স্কার্ফ দেওয়া গেলেও শাড়ি, জামা বা সমতুল্য কোনও পোষাক বিলি করা যাবে না।

এমকি সরকারি হোক বা সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত হোক বা বেসরকারি হোক, কোনও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কিংবা তাদের মাঠ রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের জন্য ব্যবহার করা যাবে না। ভোটের প্রচারের কাজে ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহার করার ক্ষেত্রে, গাড়ির সঙ্গে ফ্ল্যাগ বা স্টিকার ব্যবহার করা যাবে। কিন্তু সেক্ষেত্রে যাতে তা অন্যান্য লোকেদের সমস্যা না হয়, সেই দিকটিও স্পষ্ট করতে হবে।