ডালিম খান! এই সমস্যা থাকলে কিন্তু বিপদে পড়বেন

76

সুস্বাস্থ্য গড়ে তোলার জন্য যে ফলগুলির নাম প্রথম দিকেই আসে তার মধ্যে অন্যতম হল বেদানা। স্বাদ এবং দর্শনের দিক দিয়ে বেদানা সত্যিই অপূর্ব। কমবেশি আমরা সকলেই বেদানাকে বেশ পছন্দ করি। অনেকে আবার প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় বেদানাকে রেখে দেন। কোনো কোনো মানুষের জন্য এই বেদনা ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করতে পারে। এমনকি প্রাণ পর্যন্ত চলে যেতে পারে।চলুন আজকে জেনে নেওয়া যাক যে চার ধরনের মানুষের জন্য বেদানা ক্ষতিকারক তার তালিকা।

১) এখনকার বেশিরভাগ মানুষেরই উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা থাকে। উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা দূর করার জন্য বেদানা একটি উপাদেয় ফল। কিন্তু যে সমস্ত মানুষ কম রক্তচাপ অর্থাৎ লো প্রেসারের সমস্যায় ভোগেন তারা যদি বেদানা খান তাহলে প্রেসার আরো কমে যাবে সে ক্ষেত্রে তাদের প্রাণহানি হওয়ার ঝুঁকি থেকে যায়। তাই যারা কম রক্তচাপের সমস্যায় ভুগছেন তারা কখনোই বেদানা খাবেন না।

২) যে সমস্ত মানুষ মানসিক রোগের সমস্যার জন্য নিয়মিত ঔষধ খান তারা কখনোই বেদানা খাবেন না। মানসিক রোগীদের ক্ষেত্রে বেদানাটি বিষের সমতুল্য খাবার।

৩) যারা সর্দি কাশির সমস্যায় নিয়মিত ভোগেন তারা কখনো বেদনা খাবেন না। বেদানা সাধারণত ঠান্ডা জাতীয় ফল তাই এটি গরমকালে খাওয়া উচিত। শীতকালে বেদানা খাওয়া উচিত নয় তাতে সর্দি বেশি লাগবে।

৪) আবার যাদের এলার্জি সমস্যায় আছে তাদের পক্ষেও বেদানা মারাত্মক হয়ে উঠতে পারে। বেদনার মধ্যে থাকা কিছু উপাদান এলার্জি সমস্যাকে বাড়িয়ে তোলে। তাই যারা এলার্জির সমস্যায় ভোগেন তারা বেদানা খাবেন না।

মানুষের শরীরকে সুস্থ করার জন্য প্রকৃতি আমাদের কাছে উপহার দিয়েছে শাকসবজি ফল প্রভৃতিকে। শরীরকে ভালো রাখার জন্য ফল যেমন উপকারী তেমন কোনো কোনো ক্ষেত্রে এই ফল অনুপকারীও হয়ে ওঠে। আমার উপরের লেখাটা থেকে সহজেই জানা যাবে কোন কোন মানুষদের ক্ষেত্রে বেদানা মারাত্মক রূপ ধারণ করতে পারে।