মদ না খেয়েও মাতাল, বিরল রোগে আক্রান্ত ইংল্যান্ডের এক বাসিন্দা

6
মদ না খেয়েও মাতাল, বিরল রোগে আক্রান্ত ইংল্যান্ডের এক বাসিন্দা

জাতে মাতাল তালে ঠিক। এই কথাটি অনেক বার শুনতে পাই আমরা। মদ্যপান আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকারক একথাও আমাদের সকলের জানা। তবে মদ না খেয়েও যদি আপনাকে কেউ মাতাল বলে, তাহলে নিশ্চয়ই আপনার মাথা গরম হয়ে যাবে। আর হয়ে যাওয়াটাই তো স্বাভাবিক। দোষ না করে দোষী বললে রাগ তো হবেই। অনেকটা ঠিক পিকের মত। অন্যের কথা বুঝতে না পারার জন্য তাকে অনেকেই মাতাল বলে মনে করেছিলেন।

কিন্তু এমন ঘটনা সচরাচর শোনা যায় না, যা শোনা গেল ইংল্যান্ডের সাফোকের (‌Suffolk) লোয়েস্টফ্ট এলাকায় নিক নামে মানুষের জীবনী থেকে। তিনি এমন একজন মানুষ, যিনি সুরানা পান করেও নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়েন। শুধু এখানেই শেষ নয়, প্রতিনিয়ত ও তার রক্তে অ্যালকোহলের মাত্রা বেড়েই চলেছে। তাকে অ্যালকোহলের মাত্রা পরীক্ষা করার জন্য সঙ্গে রাখতে হয় ব্রেক এনালাইজার।

বিগত কুড়ি বছর ধরে এ রকম একটি রোগে ভুগছেন নিক। এই রোগটির নাম অটো বিওয়ারি সিনড্রোম। এই রোগে যদি কোন ব্যক্তি আক্রান্ত হন,তাহলে তিনি কার্বোহাইড্রেট যুক্ত খাবার খেলেই, শরীরের ভেতরে রাসায়নিক বিক্রিয়ার শুরু হয়ে যায়। প্রচুর পরিমাণে ইথানল উৎপন্ন হতে থাকে। যা ক্ষুদ্রান্তে পৌঁছে গেলে সর্বনাশ।

মুহুর্তের মধ্যে ব্যক্তি রক্তে অ্যালকোহলের মাত্রা প্রচুর পরিমাণে বেড়ে যায়। রাসায়নিক কারখানায় কাজ করার ফলে এমন রোগ বাসা বেঁধেছে তার শরীরে, এমনটাই চিন্তাভাবনা চিকিৎসকের। প্রথমে তিনি এ ব্যাপারে কিছুই জানতেন না। একদিন কাজের মধ্যে তিনি অজ্ঞান হয়ে যান তিনি।

পরে এই রোগের কথা জানতে পারেন নিক এবং তার স্ত্রী। এই রোগের সম্পর্কে বিশদভাবে জানার চেষ্টা করেন তারা। সুস্থ থাকতে হলে কার্বোহাইড্রেট যুক্ত খাবার একেবারেই খেতে পারবেন না নিক। সম্পূর্ণ পরিমাণে ডায়েট মেনে চলতে হয় তাকে।