সুপারসনিক ক্রুজ মিসাইল “ব্রহ্মস” এর সফল উৎক্ষেপণ করল ডিআরডিও

3
সুপারসনিক ক্রুজ মিসাইল

ভারতীয় প্রতিরক্ষা গবেষণা কেন্দ্র ডিফেন্স রিসার্চ ডেভলপমেন্ট অর্গানাইজেশন তথা ডিআরডিও এর নতুন প্রচেষ্টা সফল হলো। রবিবার, ভারতের স্টিলথ ডেস্ট্রয়ার আইএনএস চেন্নাই থেকে সফলতার সঙ্গে উৎক্ষেপিত হলো শক্তিশালী সুপারসনিক ক্রুজ মিসাইল “ব্রহ্মস”। একসঙ্গে একাধিক নিশানা হানতে সক্ষম “ব্রহ্মস” এদিন নির্ভুলভাবে নিজের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম হয়েছে।

ভারত ও রাশিয়ার বিজ্ঞানীদের যৌথ প্রচেষ্টায় ডিআরডিও এর আধিকারিকেরা তৈরি করেছেন “ব্রহ্মস” মিসাইলটিকে। ভারতীয় সেনাবাহিনীর রণতরী আইএনএস চেন্নাই থেকে এই শক্তিশালী মিসাইলটিকে পরীক্ষামূলকভাবে সফলতার সঙ্গে উৎক্ষেপণ করা হয়। উল্লেখ্য, গত ৩০শে সেপ্টেম্বর “ব্রহ্মস” মিসাইলের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে ভারত।

সুপারসনিক ক্রুজ মিসাইল “ব্রহ্মস” এর পাল্লা ৪০০ কিলোমিটার। এর আগে অবশ্য ৩০০কিলোমিটার দূরত্বে অবস্থিত লক্ষ্যবস্তুতে নির্ভুল ভাবে আঘাত হানতে পারতো “ব্রহ্মস”। নতুন সংস্করণটিতে মিসাইলের পাল্লা আরো একশো কিলোমিটার বাড়ানো হয়েছে। ডুবোজাহাজ, রণতরী, বিমান ও ট্যাঙ্ক থেকে শত্রুপক্ষকে লক্ষ্য করে এই মিসাইল ছোঁড়া যায়।

২০১৯ সালে সু-৩০ বিমান থেকে এই সুপারসনিক ক্রুজ মিসাইলের প্রথম সফল উৎক্ষেপণ করে ভারতীয় বায়ুসেনা। উল্লেখ্য, লাদাখে ভারত-চীন সীমান্ত সংঘর্ষের আবহে ভারতীয় সেনাবাহিনীকে আরো বেশি মজবুত করে তুলতে লাদাখ ও অরুণাচলপ্রদেশের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় অবস্থান করছে  “ব্রহ্মস”। ভারত-চীন প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় আরো বেশি পরিমাণ সামরিক সরঞ্জাম মজুত করে চীনের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত নিজেদের আরো বেশি শক্তিশালী করে তুলছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।