আইসক্রিমের মধ্যে করোনা! এমনই আশঙ্কাজনক তথ্য মিললো উত্তর চীনে

5
আইসক্রিমের মধ্যে করোনা! এমনই আশঙ্কাজনক তথ্য মিললো উত্তর চীনে

আইসক্রিমের মধ্যে করোনাভাইরাস! এমনই আশঙ্কাজনক তথ্য মিললো উত্তর চীনে। উত্তর চীনের তিয়ানজিন দাকিয়াওদাও ফুড কোম্পানির বানানো আইসক্রিমে প্রচুর পরিমাণে করোনাভাইরাস পাওয়া গিয়েছে। চাঞ্চল্যকর বিষয় হলো, এই কোম্পানির আইসক্রিম ইতিমধ্যেই বাজারে ছড়িয়ে পড়েছে। সংশ্লিষ্ট সংস্থার থেকে জানানো হয়েছে, ৪৮৩৬টি আইসক্রিমের প্যাক তারা বানিয়েছে। বিষয়টি নজরে আসতেই ২০৮৮টি আইসক্রিম বাজেয়াপ্ত করে নেওয়া হয়েছে।

তবে এ পর্যন্ত ৬৫টি আইসক্রিম বিক্রি হয়ে গিয়েছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। এছাড়াও ৯৩৫টি আইসক্রিম এখনো বাজারেই রয়েছে। প্রশাসনের তরফ থেকে আপাতত সেই গ্রাহকদের তল্লাশি চালানো হচ্ছে যারা এই সংক্রমিত আইসক্রিম কিনেছেন। তবে তাদের খুঁজে পাওয়া বেশ দুষ্কর। বর্তমানে ওই কোম্পানির আইসক্রিমের গ্রাহকদের নিয়ে বেজায় চিন্তিত চীনের প্রশাসন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, তিয়ানজিন দাকিয়াওদাও ফুড কোম্পানির প্রতিটি পণ্য ল্যাবরেটরীতে টেস্ট করানো হয়েছে। সব পণ্যের মধ্যেই করোনাভাইরাস পাওয়া গিয়েছে বলে জানানো হয়েছে। এমতাবস্থায় কোম্পানির সবকটি পণ্য সিল করে দিয়েছে প্রশাসন। সংস্থার তরফ থেকে অবশ্য দাবি করা হচ্ছে, তাদের বানানো পণ্যের জন্য প্রয়োজনীয় কাঁচামাল তারা নিউজিল্যান্ড এবং ইউক্রেন থেকে সংগ্রহ করেছিল।

সংস্থাটির দাবি, কাঁচামালের মধ্যে নিউজিল্যান্ড থেকে যে মিল্ক পাউডার এসেছিল, পরীক্ষা করে দেখা গিয়েছে তার মধ্যেই করোনাভাইরাস আছে। এদিকে ওই কোম্পানির সকল কর্মচারীর করোনা টেস্ট করিয়েছে প্রশাসন। কোম্পানির প্রায় সাতশো জন কর্মচারীর করোনা টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। বাকিদের রিপোর্ট এখনও পাওয়া যায়নি। সংক্রমিত আইসক্রিম নিয়ে এখন নতুন করে চিন্তার মুখে চীন।