প্রতিদিনই কি সকালবেলা উঠে গলা শুকিয়ে যায়? জানুন কি রোগ হতে পারে

24
প্রতিদিনই কি সকালবেলা উঠে গলা শুকিয়ে যায়? জানুন কি রোগ হতে পারে

আপনার কি সকালবেলা উঠে গলা শুকিয়ে যাবার অভ্যাস আছে? সকালে উঠে কি মনে হয় জল খেতে হবে? মনে হয় কোন দুঃস্বপ্ন দেখে উঠলেন তাই গলা শুকিয়ে গেল? এরা যদি প্রত্যেক দিনের ঘটনা হয় তাহলে এর আসল কারণ আপনাকে বের করতে হবে খুঁজে। এর আসল কারণ হল একটি রোগ। জেরোস্টোমিয়া নামক একটি রোগের কারণে মুখের লালার অভাবে এই সমস্যা সৃষ্টি হয়। অনেক সময় আমাদের ঢোক গেলা অথবা কথা বলার জন্য সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। চলুন জেনে নেওয়া যাক এই রোগের সম্পর্কে কিছু তথ্য।

ওষুধের পার্শ্ব প্রক্রিয়া: কোন কোন রোগের কারণে আমাদের এমন কিছু ওষুধ সেবন করতে হয়, যা আমাদের মুখ শুষ্ক করে দিতে পারে। বিশেষত হতাশা,ব্যথা অথবা পেশী শিথিলতার জন্য যে সমস্ত ওষুধ আমরা খাই তার ফলে এই শুষ্ক ভাব আসতে পারে আমাদের মুখে।

নাকের বদলে মুখ দিয়ে শ্বাস নেওয়া: অনেক সময় আমরা ঘুমিয়ে পড়লে মুখদিয়ে নিশ্বাস নিতে থাকি। এর প্রধান কারণ হতে পারে হাইপোসালিভেশন। আপনারা যদি এমন সমস্যা থেকে থাকে তাহলে আজই এই অভ্যাস ত্যাগ করুন। কেন আপনি ঘুমিয়ে পড়লে মুখ দিয়ে নিঃশ্বাস নেন, তার আসল কারণ খুঁজে বার করার চেষ্টা করুন। দরকার পড়লে ইএনটি ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

ধূমপান অথবা অ্যালকোহল: অতিরিক্ত ধূমপান করলে আমাদের ফুসফুসের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে, এর ফলে আমাদের মুখের লালা উৎপাদন কমে যায় যা মুখ শুষ্ক হওয়ার অন্যতম কারণ হতে পারে। ডেন্টাল ক্লিনিক, ডেন্টাল প্রস্পেক্টস,জার্নাল অফ ডেন্টাল রিসার্চের পরীক্ষায় দেখা গেছে যে, যে সমস্ত মানুষ ধূমপান করেন,তাদের ৩৯ ভাগ মানুষ শুষ্কমুখে র সমস্যায় ভোগেন।

ডায়াবেটিস: আমাদের সমাজে অন্যতম রোগ হিসেবে ডায়াবেটিসের নাম ছড়িয়ে পড়েছে। ডায়াবেটিসের কারণে আমাদের শরীরে বিভিন্ন সমস্যা সৃষ্টি হয়। তাই যদি আপনার মুখ শুষ্ক হয়ে যায় তাহলে অবশ্যই একবার রক্ত পরীক্ষা করিয়ে নেবেন। আর যদি প্রায়শই এরকম সমস্যা হয়, তাহলে আগে ডাক্তারের পরামর্শ নেবেন।