জানেন কি কলেজে থাকাকালীন কে ছিলেন ঐশ্বরিয়ার ক্রাশ ? জেনে নিন

8
জানেন কি কলেজে থাকাকালীন কে ছিলেন ঐশ্বরিয়ার ক্রাশ ? জেনে নিন

বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তথা বিশ্ব সুন্দরী ঐশ্বর্য রাই। অন্যদিকে বলিউডের বিগবি অমিতাভ বচ্চন পুত্র অভিষেক বচ্চন-র স্ত্রী। বিশ্বসুন্দরী হিসেবে আজও এক ডাকে সকলেই ঐশ্বর্য রাইকেই চেনে। তিনি যেন সত্যিই রূপবতী। তাঁর রূপের জাদুতে আট থেকে আশি সবাই কাবু। এত সুন্দরীর প্রেম হবে না তা কি হয়! একবার নয়, একাধিক বার তাঁর প্রেম নিয়ে উঠেছে গুঞ্জন।

একজন প্রতিভাবান অভিনেত্রী তো বটেই, পাশাপাশি তিনি একজন নিখুঁত কন্যা, বিচক্ষণ পুত্রবধূ, স্নেহময়ী স্ত্রী এবং তার কন্যার সেরা মা। ঐশ্বরিয়া প্রতিটি সম্পর্ক খুব ভালোভাবে পালনে পারদর্শী।

প্রতিটা মানুষের ক্ষেত্রে এই কথাটা খুব খাটে যে প্রথম প্রেম কখনও ভোলা যায় না। সবার জীবনেই প্রথম প্রেম বিশেষ হয়। আর এই পরিস্থিতিতে আজ আমরা ঐশ্বর্য রাইয়ের প্রথম প্রেম নিয়ে আলোচনা করতে চলে এসেছি।

কলেজে পড়াকালীন ঐশ্বর্যের সৌন্দর্য্যে পাগল ছিল গোটা কলেজের অনেক ছেলেই। তিনি অবশ্য সেভাবে তাদেরকে পাত্তা দিতেন না। তাঁর হৃদয় অন্য কারোর জন্য ব্যাকুল হত। সে সম্পর্কে জানিয়েছেন তাঁর পুরনো বন্ধু শিবানী।

শিবানীর মতে, পদার্থবিদ্যার শিক্ষকের প্রতি ঐশ্বর্যের ক্রাশ ছিল। ঐশ্বর্য সবসময় কলেজে তাকেই খুঁজে বেড়াতেন। ঐশ্বর্য সেই কারণে তার ক্লাসে সামনের সিটে বসতেন। তবে কলেজ ছাড়ার সাথে সাথে ঐশ্বরিয়ার ক্রাশও বদলায়।

তারপরেই ঐশ্বর্যের বলিউডে প্রবেশ। শুরু হয় তাঁর একের পর এক প্রেম কাহিনী। ‘হাম দিল দে চুকে সনম’ সিনেমার সময় ঐশ্বর্য সালমান খানের প্রেমে পড়েন। দুজনের সম্পর্ক নিয়ে সেই সময় বিটাউনের অন্দরমহলে শোরগোল পড়ে গিয়েছিল। কিন্তু সেই সম্পর্ক স্থায়ী হয় নি। এরপর অ্যাশের জীবনে আসে অভিনেতা বিবেক ওবেরয়। কিন্তু সেই প্রেমেরও সমাপ্তি ঘটেছিল। সুতরাং এখানেই স্পষ্ট যে অভিষেক বচ্চন কখনোই রাই সুন্দরীর প্রথম প্রেম ছিলেন না।