বিমান অবতরণের সময় করোনা আলোচনা নিয়েই ব্যাস্ত পাইলট! অমনোযোগী হওয়ার কারণেই ঘটে দুর্ঘটনা

10
বিমান অবতরণের সময় করোনা আলোচনা নিয়েই ব্যাস্ত পাইলট! অমনোযোগী হওয়ার কারণেই ঘটে দুর্ঘটনা

এর জন্যই হয়তো বলে, যে কাজ করবে একেবারে মনোযোগ দিয়েই করবে। করোনা সময়ে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল বিমান পরিষেবা, এবার সেই বিমান পরিষেবা চালু হয়েছে কিন্তু পাইলট অবতরণের সময়ও এই করোনা অবস্হা নিয়েই আলোচনা করছিল কোনোভাবেই তার নজর সামনে ছিল না, আর তার ফলেই এই দুর্ঘটনা এমনটাই জানালো তদন্ত সংস্থা।

ঘটনাটি ঘটেছে গত ২২মে তারিখে, এ ৩২০ এয়ারবাস বিমানটি লাহোর থেকে করাচির দিকে যাচ্ছিল কিন্তু সেটা ল্যান্ড করার কিছুক্ষণ আগেই ভেঙে পরে একটি জনবসতি এলাকায়। যার ফলেই যাত্রী সহ বিমান ভেঙে পরে, মারা যায় মোট ৯৭ জন।

প্রথম দিকে এই ঘটনা ঘটার পরে সবাই মনে করেছিল যান্ত্রিক গোলযোগের কারণেই এই বিমান ভেঙে পরে কিন্তু এতদিনের তদন্তে বোঝা গেল আসলে পাইলটের অমনোযোগী হওয়ার কারণেই ঘটে এই ঘটনা। বিমানটির দুটি ইঞ্জিন হয়ে যায় বিকল, তবে এই বিমান যে ওড়ার আগে ১০০% ফিট ছিল সেই কথা জানিয়েছে পাক পরিবহণ মন্ত্রী গুলাম সারওয়ার খান। বিমানের ভয়েস রেকর্ড চেক করে দেখা গেছে বিমানের পাইলট ও সহ পাইলট নিয়ম মান্য করেন নি। তার ফলেই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে বিমান, যার ফলেই এই দুর্ঘটনার শিকার হয় মানুষ।