সামনেই দীপাবলি উৎসব, জানুন এই সময় কালীন কি কি করবেন না

16
সামনেই দীপাবলি উৎসব, জানুন এই সময় কালীন কি কি করবেন না

সামনেই বাঙালির অন্যতম বড়ো উৎসব দীপাবলি। এই আলোর উৎসবে মা কালির পাশাপাশি মা লক্ষ্মীর পূজাও করেন গৃহস্থরা। আর মা লক্ষ্মীর পূজা মানেই অনেক নিয়ম কানুনের সাথে সেই পূজো করা হয় থাকে। তবে এই সময় কালীন কি কি করবেন না সেটা জানাও প্রয়োজনীয়। যেমন –

১. শঙ্খ ও কড়ি :- বাড়িতে অনেক সময় শঙ্খ ভেঙে গেলে বা পুরনো কড়ি পেলে আমরা ফেলে দি। কিন্তু এই সময়টায় এসব ফেলে দেওয়া মোটেই শুভ লক্ষণ নয়। কারণ এই দুটি লক্ষ্মীর প্রতীক তাই এগুলো ফেলে দিলে লক্ষ্মী চলে যায় বলে মনে করা হয়।

২. শালু বা লাল কাপড় :- বাড়িতে পুরনো শাড়ি থাকলে বা শালু থাকলে সেটাকে ফেলে দেবেন না। ফেলে না দিয়ে নিরাপদে রাখুন, কারণ এটি সৌভাগ্যের প্রতীক। এতে মা লক্ষ্মীর কৃপা চিরকাল থাকবে।

৩. পুরানো কয়েন :- প্রায়শই পরিষ্কার করার সময় পুরানো কয়েন একটি পার্স বা বাক্সে পাওয়া যায়। যা আজকের যুগে ব্যবহার অচল, কিন্তু ঘরে থাকার কারণে মা লক্ষ্মীর অধিবাস হয়। তাই ফেলে না দিয়ে যত্ন করে রেখে দিন। এতে মা লক্ষী প্রসন্ন হবেন।

৪. ঝাড়ু :- ঝাড়ু-কে মা লক্ষ্মীর সঙ্গে সম্পর্কিত বলে মনে করা হয়। তাই দীপাবলিতে নতুন ঝাড়ু কেনার কোথাও বলা হয়ে থাকে। এছাড়াও, শাস্ত্র অনুসারে, বাড়িতে ভাঙা ঝাড়ু রাখা ভালো নয়। তবে যদি এটি ফেলে দিতে হয় তবে শুক্রবার বা বৃহস্পতিবার ভুল করে করবেন না। এতে করে গৃহের সচ্ছলতা দূর হয় এবং দারিদ্র্য দূর হয়।

৫. ময়ূরের পালক :- ময়ূরের পালক আমরা সকলেই জানি শ্রী কৃষ্ণের খুবই পছন্দের একটি জিনিস। আর ভগবান বিষ্ণুর আরেক অবতার হচ্ছেন কৃষ্ণ। তাই এই সময় বাড়িতে থাকা ময়ূরের পালক ফেলে দিলে লক্ষ্মী দেবী রুষ্ট হন। ময়ূরের পালক আর্থিক উন্নতি হতে সাহায্য করে বলেও মনে করেন অনেকে। তাই ময়ূরের পালক আবর্জনায় ফেলবেন না। যত্ন করে রেখে দিন। সংসারে অভাব হবে না তাহলে।