দুষ্কৃতীর আক্রমণে আহত ধুপগুড়ির বিজেপির যুব মোর্চার সদস্য

6
দুষ্কৃতীর আক্রমণে আহত ধুপগুড়ির বিজেপির যুব মোর্চার সদস্য

একুশের বিধানসভা নির্বাচন উপলক্ষে মেতেছে বাংলা। চলতি দফায় যাতে রাজ্যে কোনরকম ঝামেলা, অশান্তি কিংবা হিংসা হানাহানির ঘটনা না ঘটে তার জন্য পশ্চিমবঙ্গের নিরাপত্তার উপর বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। ৭৪৫ কোম্পানির কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে বাংলায়। তবুও হিংসার ঘটনা এড়ানো সম্ভব হচ্ছে না। রাজ্যের প্রথম দফার নির্বাচনের দিনেই আক্রান্ত হলেন বিজেপির যুব মোর্চার এক সদস্য।

বিশিষ্ট সূত্রে খবর শনিবার রাত সাড়ে দশটা নাগাদ বিজেপির যুব মোর্চার ওই সদস্যের উপর হামলা চালানো হয়। ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন তিনি। বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন যুব মোর্চার ওই সদস্য। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপির অভিযোগ তৃণমূল আশ্রিত গুন্ডারাই এমন কাজ করেছে। তবে বিজেপির এই দাবি মেনে নিতে নারাজ তৃণমূল। ফলে রাজ্যে আবার নতুন করে বিজেপি-তৃণমূল তরজা শুরু হয়েছে।

অজ্ঞাত পরিচয় কিছু দুষ্কৃতীর আক্রমণে আহত হয়েছেন ধুপগুড়িতে বিজেপির যুব মোর্চার সদস্য রণজিত ঘোষ ওরফে রনো। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূলের উপর অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছে বিজেপি। তবে তৃণমূলের সাফ দাবি, ব্যক্তিগত আক্রোশের কারণেই ওই বিজেপি সদস্যের উপর হামলা চালানো হয়েছে। হামলার দায় পুরোপুরি অস্বীকার করেছে তৃণমূল।

বিশিষ্ট সূত্রে খবর, শনিবার রাত সাড়ে দশটা নাগাদ জলপাইগুড়িতে দলীয় বৈঠক সেরে বাড়ি ফিরছিলেন ওই বিজেপি সদস্য। সেই সময় ধূপগুড়ি বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় একটি দোকানে অতর্কিতে তার উপর হামলা চালায় কিছু দুষ্কৃতী। যার ফলে তার ডান চোখের নীচে, বাঁ চোখের উপরে এবং গলায় আঘাত লেগেছে। হামলাকারীদের মধ্যে থেকে একজন পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে।