তৈরি হল নিম্নচাপ! ক্রমশই শক্তি বাড়াচ্ছে ‘যশ’

9
তৈরি হল নিম্নচাপ! ক্রমশই শক্তি বাড়াচ্ছে 'যশ'

আস্তে আস্তে বছরের দ্বিতীয় সাইক্লোন নিয়ে জল্পনা-কল্পনা উঠেছে তুঙ্গে। স্পষ্ট হচ্ছে গতিপথ। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী পশ্চিমবঙ্গের উপকূলের দিকে আসতে চলেছে এই ঘূর্ণিঝড়। ছাব্বিশে মে বিকেলবেলা এই ঝড় আছড়ে পড়বে বলে জানা গেছে। গত বছরের মতোই এই ঘূর্ণিঝড়ের শক্তি হবে বিশাল। ইতিমধ্যেই বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে বলে জানা গেছে। সে নিম্নচাপ আস্তে আস্তে প্রতি তীব্র ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে।

শুক্রবার মৌসম ভবন এর তরফ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে যেখানে জানানো হয়েছে যে, আজ সাড়ে আটটায় তৈরি হয়েছে এই নিম্নচাপটি। আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী 24 তারিখ এই সাইক্লোন ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে এবং 24 ঘন্টার মধ্যে প্রতি তীব্র ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়ে যাবে। 26 তারিখ সকালে এই ঝড় আস্তে আস্তে এগিয়ে আসবে বাংলায় এবং উড়িষ্যা উপকূলের দিকে।

ঝড়ের প্রভাবে দক্ষিণবঙ্গ ছাড়া উত্তরবঙ্গ জুড়ে বৃষ্টিপাত হবে। গঙ্গা তীরবর্তী এলাকাগুলিতে ২৫ মে থেকে বৃষ্টিপাত শুরু হয়ে যাবে। অন্যদিকে হিমালয় ঘেষা এলাকাগুলোতেও বৃষ্টি হবে বলে জানানো হয়েছে। একাধিক দূরপাল্লার ট্রেন ইতিমধ্যেই বাতিল করা হয়েছে এই সাইক্লোনের আশঙ্কায়। হাওড়া চেন্নাই মেল লাইন এর সমস্ত ট্রেনে বাতিল করে দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে পুরী ভুবনেশ্বর থেকে হাওড়া আসার সমস্ত ট্রেন বাতিল করা হয়েছে।

উপকূল এলাকাগুলিতে ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলার জন্য প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন জওয়ানরা। দুই মেদিনীপুরে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে একই ছবি। বুলবুল এবং আম্ফান এর পর এটি তৃতীয় শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়তে চলেছে পশ্চিমবঙ্গের উপর। নিঃসন্দেহে এটি একটি নজিরবিহীন ঘটনা বলে উল্লেখ করেছেন আবহাওয়া দপ্তর।