উপকূলে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড়! সতর্ক করল আবহাওয়া দপ্তর

18
উপকূলে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড়! সতর্ক করল আবহাওয়া দপ্তর

বর্ষা শুরু হয়ে গেছে, কিন্তু নেই কোনো বৃষ্টির দেখা। আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে বারবার আগাম বৃষ্টির কথা জানালেও, তেমন কোনো লাভ হয়নি। কারণ বৃষ্টির তেমন কোনো উপস্হিতি লক্ষ্যই করা যায়নি। তবে এবার আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর দক্ষিণ বঙ্গবাসীদের জন্য এক সুখবর দিয়েছে। আজ বুধবার থেকেই নাকি প্রবল বৃষ্টিপাত শুরু হবে দক্ষিণবঙ্গে, তবে শুধু বৃষ্টিপাত নয় সাথে চলবে ঘূর্ণিঝড়।

ইতিমধ্যেই বঙ্গোপসাগরে নাকি নিম্নচাপ সৃষ্টি হয়েছে, যার কারণেই এই ঘূর্ণিঝড় ধেয়ে আসছে উপকূলে। ১৩ ও ১৪ জুলাই এই ঘূর্ণিঝড়ের সতর্কবার্তা জারি করেছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর। সমুদ্রের পরিস্থিতি স্বাভাবিকভাবেই অনেকটা উত্তাল থাকবে, সেই কারণে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যাওয়ার নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এই সময়ে ইলিশ মাছের সিজন, সমুদ্রে যাওয়ার নিষেধাজ্ঞা শুনতে পেয়ে দারুন ভাবে মুষড়ে পরেছে। এই সময়ই আসলে মাছের সিজন, ভরা বর্ষা যাকে বলে।

ইতিমধ্যে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে স্পষ্ট জানানো হয়েছে, এই ঘূর্ণিঝড়ের কারনে মেদিনীপুর,উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং হাওড়া, হুগলি, কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে বৃষ্টিপাত হবে টানা ৪-৫ দিন। তবে হ্যা বাড়ি থেকে ওদের বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই বলেই মনে করা হচ্ছে। তবে ঘূর্ণিঝড় এর কারনে কোনরকম ভয়াবহ পরিস্থিতির শিকার হতে হবে কিনা,, তা এখনো স্পষ্ট জানা যায়নি। তবে সমুদ্র উত্তাল থাকবে বলেই মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।