গ্রাহকদের প্রতারণা করার নতুন কৌশল বের করেছে সাইবার অপরাধীরা! সতর্ক করল কলকাতা পুলিশ

21
গ্রাহকদের প্রতারণা করার নতুন কৌশল বের করেছে সাইবার অপরাধীরা! সতর্ক করল কলকাতা পুলিশ

দিন প্রতিদিন প্রতারণার নতুন ফাঁদ পেতে চলেছে সাইবার দুনিয়ার অপরাধীরা। ব্যাংকের নামে এতদিন ভুয়ো ফোন কল এবং ভুয়ো মেসেজ করে গ্রাহকদের থেকে জরুরি সব তথ্য হাতিয়ে নিয়ে প্রতারণা চালাচ্ছিল প্রতারকেরা। এবার তারা প্রতারণার নতুন কৌশল বের করেছে। এই কৌশলে গ্রাহকের ব্যাংক একাউন্ট সম্পর্কিত ডিটেলস যেমন ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট নম্বরের শেষ চারটি অক্ষর পাঠিয়ে গ্রাহকের বিশ্বাস অর্জন করছে।

একনজরে দেখলে মনে হতে বাধ্য যে ব্যাংক থেকেই মেসেজ এসেছে। সেই মেসেজে লেখা থাকছে গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে ৫০ হাজার টাকা কিংবা ২৫ হাজার টাকা কিংবা ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ক্রেডিট হয়েছে! ব্যাংক একাউন্ট সম্পর্কিত ডিটেইলস জানার জন্য নিজে একটি লিংক দেওয়া থাকছে। যদি গ্রাহক ফাঁদে পড়ে এই লিংকে কোনক্রমে টাচ করে বসেন তাহলেই বিপদ। ব্যাংক একাউন্ট মুহূর্তের মধ্যে সাফ করে দিতে পারে সাইবার অপরাধীরা।

এই দফায় প্রবীণদেরই টার্গেট করা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। প্রবীনদের প্রলোভন দেখাতে মোটা অংকের টাকার লোভ দেখানো হচ্ছে। কলকাতা পুলিশ এই প্রতারণা চক্র থেকে গ্রাহকদের সচেতন থাকার পরামর্শ দিচ্ছে। সম্প্রতি পঁয়ষট্টি ঊর্ধ্ব এক ব্যক্তির কাছে এই সম্পর্কিত বেশ কয়েকটি মেসেজ আসে। সেখানে প্রতিবার মেসেজে মোটা অংকের টাকার প্রলোভন দেখানো হয়। সেই টাকা ক্রেডিট করার জন্য নিম্নোক্ত লিংকে ক্লিক করতে বলা হয়। যদি তিনি এই লিংকে ক্লিক করতেন তাহলেই প্রতারকেরা তার ব্যাংক একাউন্ট থেকে টাকা তুলে নিত।

‘ই-ওয়ালেটের কেওয়াইসি আপডেট করা হয়েছে’ বলেও মেসেজ পৌঁছেছে বহু গ্রাহকের কাছে। আধার ও প্যান নম্বর যাচাই করার জন্য প্রদত্ত লিংকে ক্লিক করে টাকা ক্রেডিট করার প্রলোভন দেখানো হয়েছে অনেককেই। এই ধরনের কোন ঘটনা ঘটলে তৎক্ষণাৎ কলকাতা পুলিসের ৮৫৮৫০৬৩১০৪ নম্বরে যোগাযোগ করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে সাধারণ মানুষকে। পাশাপাশি কোনো অপরিচিত নম্বর থেকে ব্যাংক সম্পর্কিত মেসেজ অথবা ফোন কলের জবাব না দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।