শাক সবজির খোসা আবর্জনা দিয়ে এভাবে করুন চাষ, স্বাস্থ্যকর হবে গাছ

17
শাক সবজির খোসা আবর্জনা দিয়ে এভাবে করুন চাষ, স্বাস্থ্যকর হবে গাছ

এখনকার সমাজে খোলামেলা বাড়ি চিন্তা করাই যায় না। বড় দালান, উঠোন তার সঙ্গে বাগান, এই সমস্ত এখন অতীত। বর্ষা একমাত্র ছোট্ট বাড়ির ছোট্ট বেলকনি। অনেকের আবার ছাদ থাকে না। তাই অক্সিজেনের খোঁজ পাওয়ার জন্য বাড়ির ব্যালকনি থেকে তবে গাছ বসানো অনেকেই। কিন্তু ছোট্ট জায়গাতে কিভাবে বেড়ে উঠবে গাছ, তাই নিয়ে অনেকেই চিন্তা করেন। তবে এবার আর চিন্তা নেই। গাছ প্রেমিকদের জন্য রয়েছে সুখবর। আপনাদের বাড়িতে রান্না ঘরের ব্যবহৃত কয়েকটি সামগ্রী দিয়ে আপনি গাছের পুষ্টি বৃদ্ধি করে দিতে পারেন। তাই আর দেরি না করে জেনে নিন, রান্নাঘরের কোন কোন সামগ্রী আপনার কাজে লাগবে। এক নজরে দেখে নেওয়া যাক।

বেশিরভাগ গৃহস্থবাড়িতে কলা সব সময় পাওয়া যায়। খাওয়া-দাওয়ার পর যে খোসা আবর্জনা ফেলে দেন আপনি। আজ থেকে তা আর করবেন না। কলার খোসা টবের মধ্যে পুঁতে রেখে দিন। না হলে ছোট ছোট করে কেটে গাছের আশেপাশে ছড়িয়ে দিন। যদি এটি না করেন তাহলে, কলার খোসা জলের মধ্যে ডুবিয়ে রেখে সেই জল দিতে পারেন গাছের গোড়া তে। পটাশিয়াম এর প্রভাবে আপনার গাছ কেমন সুন্দর হয়ে ওঠে আপনার সামনে, তা দেখলেই বুঝতে পারবেন আপনি। ডিমের খোসায় প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম থাকে। তাই ডিমের খোসা ফেলে না দিয়ে আজই ছড়িয়ে দিন গাছের তলায়। সপ্তাহখানেক পর নিজেই ম্যাজিক বুঝতে পারবেন।

টমেটো অথবা গোলাপ গাছ যদি বাড়িতে থাকে, তাহলে মাটির গোড়ার ভারসাম্য রক্ষা করার জন্য আজি সেখানে ছড়িয়ে দিন কফি বীজ। আজকাল অনেকেই বাড়িতে গ্রিন টি খান সকাল বেলা খালি পেটে। গ্রিন টির ব্যাগ বানানো দিতে পারেন গাছের গোড়া থেকে। আপনার গাছ কিছুদিনের মধ্যেই স্বাস্থ্যোজ্জ্বল হয়ে উঠবে। প্রত্যেকের বাড়িতে রান্না করার সময় পেঁয়াজ অথবা রসুন ব্যবহার করা হয়। এই খোসা যদি গাছের গোড়ায় ছড়িয়ে দিতে পারেন, তাহলে আপনার গাছ পুষ্টিকর হয়ে উঠবে।