ফাভিপিরাভির নামে কোরোনার প্রকৃত ওষুধ রাশিয়ার হাতে, আগামী সপ্তাহে শুরু হবে চিকিৎসা

57
ফাভিপিরাভির নামে কোরোনার প্রকৃত ওষুধ রাশিয়ার হাতে, আগামী সপ্তাহে শুরু হবে চিকিৎসা

এবার দেখা গেলো এক আশার আলো, কারণ এবার রাশিয়ার পক্ষ থেকে করোনা প্রতীরোধী এক ওষুধ তৈরী করা হয়েছে, যেখানে দেশের আর ডিই এফ সভারেন ওলেথ ফান্ডের প্রধান এই ওষুধ সম্পর্কে জানিয়েছেন। আগামী ১১ জুন করোনা রোগীদের দেহে ওষুধ প্রয়োগ করা হবে, এই ওষুধের নাম রাখা হয়েছে আফিফাভির। এখনও পর্যন্ত যা ওষুধ বানানো হয়েছে তা ৬০,০০০ মানুষের মধ্যে প্রয়োগ করা যাবে।

আসলে এখনও পর্যন্ত যেসব ওষুধ প্রয়োগ করা হয়েছে , সেগুলো একটাও কাজে দেয় নি। মানুষের শরীরে প্রয়োগ করা হয়েছে,কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয় নি। তবে আমেরিকার তৈরী ওষুধ রেমেসিভের কিছু ক্ষেত্রে কাজ হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। সেটা কয়েকটি রোগীর ওপরে কাজ হয়েছে, সেটা তারা জানিয়েছেন। কিন্তু এবার রাশিয়ার আভিফাভির কি হয় সেটাই দেখার, এর আসল নাম আসলে ফাভিপিরাভির।

এই ওষুধ কিন্তু এখন তৈরী হয় নি, এই ওষুধ তৈরী হয়েছে ৯০ এর দশকে, কিন্তু এখনকার যে ওষুধ তা আগের থেকে অনেকটাই উন্নত।এই সব ওষুধ আসলে জীবাণুনাশক , কারণ ভ্যাক্সিন এখনও আসে নি বাজারে, কিন্তু চিকিৎসা ক্ষেত্রে এই ওষুধ খুবই কাজে, তবে জাপানেও শুরু হয়েছে এই ওষুধের গবেষণা, তবে সেখানে এখনও মানুষের ওপরে পরীক্ষা করা হয় নি, কিন্তু এই ওষুধ রাশিয়ায় মানুষের ওপরে পরীক্ষা করা হয়েছে, আর তার ফল ৪ দিনের মধ্যেই পাওয়া গেছে।

৩৩০ জনের মধ্যে টেস্ট করা হয়েছে।রাশিয়া ইতিমধ্যে ওষুধের তালিকায় এর নাম যুক্ত করে দিয়েছে। তাই এই নিয়ে দারুণ ভাবে কাজ শুরু হয়ে গেছে। রাশিয়ার অবস্থা খুব একটা ভালো না, কারণ সেখানে ৪১৪,৮৭৮ জনের মতো আক্রান্ত হয়ে গেছে, আর মৃত্যুর সংখ্যাও প্রায় ৫০০০ মতোই।