করোনার কারনে গর্ভবতী হবার পরিকল্পনা স্থগিত রাখতে হচ্ছে! কান্নায় ভেঙে পড়লেন কমেডিয়ান ভারতী সিং

28
করোনার কারনে গর্ভবতী হবার পরিকল্পনা স্থগিত রাখতে হচ্ছে! কান্নায় ভেঙে পড়লেন কমেডিয়ান ভারতী সিং

ইতিমধ্যে করোনার জন্য তাদের আগামী দিনের বিভিন্ন পরিকল্পনা বাতিল করে দিয়েছেন। কেউ ঘুরতে যাবার কেউবা পরীক্ষা দেবার কেউ আবার সন্তান নেবার পরিকল্পনা আপাতত স্থগিত রেখেছেন। তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন কৌতুকশিল্পী ভারতী সিং। গত বছরেই তিনি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন। গত বছর স্বামী হরস লিম্বাচিয়া র সঙ্গে একত্রিত হয়ে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে জানিয়েছিলেন যে, তাদের জীবনের নতুন এক প্রাণের সঞ্চার এর কথা তারা ভাবছেন। কিন্তু সেই পরিকল্পনা পিছিয়ে দিতে হল শুধুমাত্র মহামারীর জন্য।

যেখানে চলতি বছরের গোড়ার দিকে আমরা সকলেই ভেবেছিলাম যে আমাদের মুক্তি হল এই মহামারীর হাত থেকে, সেখানে আরো একবার নতুন করে মহামারী আমাদের চোখ রাঙাতে শুরু করেছে। তাই এই বছরও তাদের সন্তান নেওয়ার পরিকল্পনা স্থগিত রাখতে হচ্ছে। এই কথা বলতে গিয়ে ডান্স দিবানে রিয়েলিটি-শো এর মঞ্চে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়লেন এই কৌতুক শিল্পী।

রিয়ালিটি শো এ প্রতিযোগিতার নাচের মাধ্যমে ফুটিয়ে তুললেন, করোনা। আক্রান্ত মায়ের মৃত্যুর ঘটনা, যিনি মাত্র ১৪ দিনের শিশুকে রেখে মারা গেছেন। এই দৃশ্যটি চোখের সামনে থেকে নিজেকে আটকে রাখতে পারেনি ভারতী সিং। এইসব দেখেই নিজের গর্ভবতী হবার পরিকল্পনা আপাতত স্থগিত রাখছেন তিনি। চোখের জলে কৌতুকশিল্পী বলে উঠলেন, আমরা সন্তানের পরিকল্পনা করছি। কিন্তু চোখের সামনে যে সমস্ত দৃশ্য দেখতে পাচ্ছি তার পরে আর পরিকল্পনা করতে ইচ্ছা করছে না। সত্যি কথা বলতে আমরা এইভাবে কেউ কাদতে চাইনা।

তার সন্তান না নেওয়ার আরো বড় কারণ হল, কিছুদিন আগে তার মা করোনাতে আক্রান্ত হয়েছেন। এই কথা মনে করে আরো একবার চোখে জল চলে আসে তার। ভারতী জানায় যে, মহামারী আমাদের সকলকেই খুব কষ্ট দিচ্ছে। বহু আপনজনকে কেড়ে নিচ্ছে এই মহামারী। আমার মাও করোনাতে আক্রান্ত হয়েছিলেন। পাশের বাড়ির এক প্রতিবেশী ও করণায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। সব সময় যেন আমাদের মধ্যে ভয়ের সঞ্চার হয়েছে। ভেতর থেকে যেন সবকিছু ভেঙে যাচ্ছে আস্তে আস্তে।

ভারতী সিং ছাড়াও সেখানে উপস্থিত ছিলেন সনু সুদ। হাজার হাজার মানুষকে যিনি সাহায্য করেছেন অবলীলায়। সেখানে তিনি ও তাঁর নিজস্ব ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করেন সকলের সাথে। কিছুদিন আগে তিনি নিজেও করোনাতে আক্রান্ত হয়েছিলেন। তবে আপাতত তিনি সুস্থ বলে জানা গেছে।