নিভারের জেরে ছিন্নভিন্ন তামিলনাড়ু ও পুডুচেরির উপকূল অঞ্চল! মৃত ৫

13
নিভারের জেরে ছিন্নভিন্ন তামিলনাড়ু ও পুডুচেরির উপকূল অঞ্চল! মৃত ৫

বঙ্গোপসাগর থেকে তৈরি হওয়া এই ভয়ানক প্রবল ঘূর্ণিঝড় নিভার এখন নিশ্চুপ। কারণ এখন তার শক্তি ক্ষয় ঘটেছে। কিন্তু শক্তি থাকাকালীন গোটা একটি রাজ্যকে একেবারে লন্ডভন্ড করে দিয়ে গেছে। বিশেষ করে তামিলনাড়ু, পুডুচেরির উপকূল অঞ্চলের সবথেকে বেশি ক্ষতি হয়েছে, যার ফলে উপরে পড়েছে হাজার হাজার গাছ, ছিঁড়েছে বৈদ্যুতিক তার, ভেঙে পড়েছে বৈদ্যুতিক খুঁটি, এমনকি প্রাণ হারিয়েছে ৫ জন মানুষ। যেটা আগামীতে আরো বাড়তে পারে বলেই মনে করা হচ্ছে।

এখন তামিলনাড়ু এবং পুডুচেরি একেবারেই জলমগ্ন অবস্থায়, গতকাল ভোররাতে স্থলভাগের প্রবেশ করেছে এই ঘূর্ণিঝড়। আর ঠিক তারপর থেকেই তার এই ভয়ানক রূপ এর সাক্ষী থেকেছে রাজ্যবাসী। প্রথমদিকে ঝড়ের গতিবেগ ১৪৫ কিমি থাকলেও পরে সেটা কমে ৮৫ কিমিতে গিয়ে নামে।

ইতিমধ্যে মৌসম ভবন থেকে জানানো হয়েছে ঝড়ের গতিবেগ কমলেও, বৃষ্টির গতিবেগ এখনো কমবে না। আগামীতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে বলে জানিয়েছে তারা। গত মঙ্গলবার থেকে এই বৃষ্টি হয়ে চলেছে তামিলনাড়ু এবং পুডুচেরি তে। এই নিভারের দাপটেই বৃষ্টির পরিমাণ আরও বৃদ্ধি পেয়েছে তামিলনাড়ু ও পুডুচেরিতে। এই কারণেই শহর এখন জলমগ্ন অবস্থায়, তাই বিপদ যে এখনি কাটছে না সেটা স্পষ্ট করেছে মৌসম ভবন। পুদুচেরির মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছে রাজ্যের অনেক জায়গা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, বিশেষ করে উপকূল অঞ্চলে। শহর এখন জলমগ্ন অবস্থায় উপরে পড়েছে হাজার গাছ ছেড়েছে বৈদ্যুতিক তার এমনকি প্রাণ হারিয়েছে পাঁচজন মানুষ। সবকিছু এখন খতিয়ে দেখা হচ্ছে, ও ত্রাণ সামগ্রী ও ক্ষতিপূরণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে।

ইতিমধ্যে চেন্নাই পুরুষের ট্রেন পরিষেবা একেবারেই ব্যাহত, সাথে তামিলনাড়ুর 13 টি জেলায় বন্ধু অফিস-আদালত স্কুল-কলেজ। মানুষ এখন বেশিরভাগ ঘর বন্দী অবস্থায়।, তবে উদ্ধারকারীরা তাদের কাজ শুরু করেছে, বিপর্যয় মোকাবিলা দলের কুড়িটি টিম নেমে পড়েছে উদ্ধারকাজে। নিচু এলাকার মানুষজনকে আগেই শরীর নিয়ে যাওয়া হয়েছিল তবে জলের মধ্যে আটকে পড়া গৃহবন্দি অবস্থায় মানুষগুলোকে উদ্ধার করছে তারা।।