এয়ারপোর্টে সালমান খানকে আটকে দিল সি আই এস এফ! জানুন তারপর

46
এয়ারপোর্টে সালমান খানকে আটকে দিল সি আই এস এফ! জানুন তারপর

দীর্ঘ লকডাউনের কারণে সমস্ত সিনেমার শুটিং বন্ধ ছিল। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর আরও একবার অভিনেতা-অভিনেত্রীরা কর্মস্থলে ফিরে যাবার চেষ্টা করছেন। সম্প্রতি মুম্বাই বিমানবন্দরে ক্যামেরাবন্দি হলেন সালমান খান এবং ক্যাটরিনা কাইফ। টাইগার থ্রি ছবির জন্য অভিনেতা এবং অভিনেত্রী যাচ্ছিলেন রাশিয়াতে। দুজনকে বিমানবন্দরে একসাথে দেখা যায়। একদিকে যেমন পাপারাজ্জিরা সালমান খানের কাছে ফটো তোলার জন্য অনুরোধ করতে থাকেন তেমন অন্যদিকে বিমান বন্দরে প্রবেশ করতে গেলেই সি আই এস এফ জওয়ান তাদের তদন্তের জন্য গেটে আটকে দেয়।

বিমানবন্দরে দাড়িয়ে থাকা সালমান খানের একটি ভিডিও নেট মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে ও ভাইরাল হয়েছে। ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সালমান খান বিমানবন্দরের দিকে যাচ্ছেন। সঙ্গে রয়েছেন সালমান খানের দেহরক্ষী এবং তার দল। একসময় চিত্র সংবাদদাতারা সালমান খানকে ছবির জন্য অনুরোধ করতে থাকেন। দুমাসের জন্য বিদেশে যাওয়ার আগে একটি ভালো ছবি তোলার জন্য আবদার করতে থাকেন চিত্রগ্রাহক।

সালমান খান আস্তে আস্তে বিমানবন্দরের দিকে এগিয়ে যান যেখানে টিকিট এবং আইডি যাচাই করার জন্য একজন সি আই এস এফ জওয়ান সালমান খানকে ভেতরে যেতে বাধা দেন। পাশাপাশি চিত্রগ্রাহকদের সরে যেতে বলেন তারা। এরপর নিজের দলকে নিয়ে বিমানবন্দরের ভিতরে প্রবেশ করেছেন সালমান খান। সালমান খানকে একজন সাধারণ মানুষের মতো আইডি এবং টিকিট যাচাই করার জন্য আটকে দেওয়াতে সকল প্রশংসা করেছেন ওই আই এস এফ জওয়ানের। ইতিমধ্যেই নেটিজেনদের কাছে একজন আইডল হয়ে গেছেন ওই জওয়ান। তারকা বলে ছেড়ে না দিয়ে নিজের দায়িত্ব যে ভাবে পালন করলেন ঐ ব্যক্তি, তাতে করে তার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন সকলেই।

অন্যদিকে ক্যাটরিনা কাইফকেও কালো পোশাক পড়ে বিমানবন্দরে দেখতে পাওয়া যায়। জিন্স, জুতো এবং একটি শোয়েট শার্ট পড়ে দেখতে পাওয়া যায় তাকে। এক থা টাইগার, টাইগার জিন্দা হে, এই দুটি সিনেমার পর এবার তিন নম্বর সিনেমা আসতে চলেছে সালমান খান এবং ক্যাটরিনা কাইফের। এ সিনেমাতে সালমান খানকে দেখতে পাওয়া যাবে ইমরান হাশমির সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে। ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে সিনেমার শুটিং এবং আগামী বছরের মধ্যে এই সিনেমা মানুষের জন্য চলে আসবে পেক্ষাপটে।

মুম্বই বিমানবন্দরে

ছবিটি