ভারতের পাশাপাশি তাইওয়ানের দিকেও হাত বাড়াচ্ছে চীন, পাল্টা হুঁশিয়ারি তাইওয়ানের

9
ভারতের পাশাপাশি তাইওয়ানের দিকেও হাত বাড়াচ্ছে চীন, পাল্টা হুঁশিয়ারি তাইওয়ানের

ভারত-চীন সীমান্ত সংঘর্ষের পাশাপাশি তাইওয়ানের দিকেও হাত বাড়াচ্ছে চীন। তাইওয়ানকে ক্রমাগত হুঁশিয়ারি দিয়ে চলেছে বেজিং। আবার, তাইওয়ানের আকাশেও টহল দিচ্ছে চীনা বায়ুসেনা বিভাগ। যেনতেন প্রকারেণ তাইওয়ানের মাটিতে নিজের আধিপত্য বিস্তার করাই মূল লক্ষ্য বেইজিং প্রশাসনের। তবে চীনের কার্যকলাপের প্রতি ক্ষুব্ধ তাইওয়ান এবার বেজিংয়ে প্রতি কড়া হুঁশিয়ারি দিল।

সম্প্রতি, তাইওয়ানের ভাইস প্রেসিডেন্ট লাই চিং চীনের প্রতি হুঁশিয়ারি দিয়ে জানালেন, তাইওয়ানের প্রতি নজর দিলে তার পাল্টা জবাব দিতে দ্বিধা করবে না তাইওয়ান। তার স্পষ্ট বক্তব্য, তাইওয়ান শান্তির পথেই চলতে চায়। তবে দেশের সীমা লঙ্ঘিত হলে, দেশবাসীকে সর্বশক্তি দিয়ে রক্ষা করার ক্ষমতা রয়েছে তাইওয়ানের। উল্লেখ্য, বেশ কয়েকদিন ধরেই তাইওয়ানের এয়ার ডিফেন্স আইডেন্টিফিকেশন জোনে বেশ কয়েকটি যুদ্ধবিমান টহল দিচ্ছে।

এদিকে, কয়েক মাস আগে মার্কিন স্বাস্থ্য সচিব আলেক্স আজার তাইওয়ান সফরে যান। এই সফর চলাকালীন মার্কিন প্রদেশের সাথে প্রতিরক্ষা চুক্তি স্বাক্ষর করে তাইওয়ান। চুক্তি অনুযায়ী, তাইওয়ানকে অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান সহ বিভিন্ন সমরাস্ত্র দেবে আমেরিকা। উল্লেখ্য, তাইওয়ানে স্বাস্থ্য সচিবের আগমন ভালোভাবে নেয়নি চীন। তাই, মার্কিন স্বাস্থ্য সচিবের সফর চলাকালীনই তাইওয়ান প্রণালী পেরিয়ে সেদেশের আকাশে টহল দিতে শুরু করে চীনের যুদ্ধবিমান।

তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক সূত্রে খবর, ওই সময় ভূমি থেকে আকাশ ক্ষেপণাস্ত্রের সাহায্যে চীনা যুদ্ধবিমান গুলিকে দেশের সীমানা থেকে বার করে দিতে সক্ষম হয় তাইওয়ানের সামরিক বিভাগ। গত মাসেই এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও পোস্ট করে তাইওয়ান। যেখানে দেখা যাচ্ছে, তাইওয়ান সেনা অজানা শত্রুর উদ্দেশ্যে বিমান বিধ্বংসী, ট্যাঙ্ক বিধ্বংসী এবং জাহাজ বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়ছে। এই ভিডিও প্রকাশের মাধ্যমে, শত্রু পক্ষের প্রতি কার্যত নিজেদের সামরিক শক্তির পরিচয় দিল তাইওয়ান।