সমুদ্রে দীর্ঘদিন ধরেই মানববর্জ্য এবং নোংরা দূষিত জল ফেলে চলেছে চীন! দাবী মার্কিন সংস্থার

16
সমুদ্রে দীর্ঘদিন ধরেই মানববর্জ্য এবং নোংরা দূষিত জল ফেলে চলেছে চীন! দাবী মার্কিন সংস্থার

সাগরে দূষণ ছড়াচ্ছে চীন। সেই কারণে সমুদ্রের বাস্তুতন্ত্র ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বলে দাবি করছেন মার্কিন সংস্থার গবেষকরা। দক্ষিণ চীন সাগরে দীর্ঘদিন ধরেই মানববর্জ্য এবং নোংরা দূষিত জল ফেলে চলেছে চীন। কেরল রিফে বসবাসকারী মাছেরা এর ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ওই গবেষক। মাছেদের মৃত্যুর পাশাপাশি সামুদ্রিক শৈবালের উপদ্রব বাড়ছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

সিমুলারালিটি ইনক-এর একটি সংস্থা লিজ ডের জানিয়েছে স্যাটেলাইট চিত্রে ধরা পড়েছে এই দৃশ্য। দীর্ঘ প্রায় পাঁচ বছর ধরে মানুষের মলত্যাগ, নোংরা জল দক্ষিণ চীন সাগরে ফেলা হচ্ছে। এর ফলে দক্ষিণ চীন সাগরে যেমন শৈবাল বাড়ছে, তেমন প্রচুর মাছের মৃত্যু হচ্ছে। যে কারণে মৎস্যজীবীরা ক্ষতিগ্রস্ত হবেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। শুধুমাত্র ১৭ ই জুনেই প্রায় ২৩৬ টি চীনা জাহাজ সমুদ্রের নোংরা বর্জ্য ফেলতে এসেছিল বলে ধরা পড়েছে উপগ্রহ চিত্রে।

তবে চীন অবশ্য এই দায়ভার নিতে নারাজ। তাদের পাল্টা দাবি, সমুদ্রের বাস্তুতন্ত্র রক্ষার্থে তারা উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। জলজ জীবন রক্ষার্থে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে তারা। চীনের তরফ থেকে অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তেমনভাবে কোনো প্রতিক্রিয়ায় এখনো পাওয়া যায়নি। তবে আমেরিকার দাবি চীন সমুদ্রের বাস্তুতন্ত্রের ক্ষতি করছে। যদিও তা মানতে নারাজ চিনা আধিকারিকেরা। তাদের দাবি দক্ষিণ চীন সাগর রক্ষার্থে তারা উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন।