চীন অস্বীকার করল, র‍্যাপিড টেস্ট কিট সম্পর্কিত সমস্ত অভিযোগ

57
চীন অস্বীকার করল, র‍্যাপিড টেস্ট কিট সম্পর্কিত সমস্ত অভিযোগ

গোটা বিশ্ব জুড়ে করোনা একটি ত্রাস হিসেবে ছড়িয়ে পড়ছে। বিশ্বের বিভিন্ন চিকিৎসক এবং চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা দিন-রাত এক করে নিজেদের গবেষণার কাজে যুক্ত করলেও এখনও অবধি করোনার কোনো প্রতিষেধক তৈরী করতে পারেননি কেউ। অন্যদিকে এরম পরিস্থিতিতে চীনে ব্যবহৃত র‍্যাপিড টেস্ট কিট সম্পর্কিত একটি রিপোর্ট জমা পড়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় যেখানে বলা হয়,এই টেস্ট কিট করোনা পরীক্ষার জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত নয় এবং যথেষ্ট গলদ রয়েছে।

প্রসঙ্গত,এবার মুখ খুলল চীন। তারা জানালো, টেস্ট কিটে কোনরকম সমস্যা নেই। যদি সমস্য থেকেই থাকে তাহলে তা রয়েছে ভারতীয়দের এইসব কিট ব্যবহারের পদ্ধতিতে। এ পর্যন্ত চিনা টেস্ট কিটের গুণগত মান নিয়ে বিস্তর জলঘোলা হয়েছে বিভিন্ন দেশেই। বারংবার প্রশ্ন করা হয়েছে চিনা টেস্ট কিন নিয়ে। কিন্তু সেই সকল অভিযোগ জাস্ট ফ্লুকে উড়িয়ে দিয়ে চীন টেস্ট কিট বিফল হওয়ার সমস্ত দায় চাপাল ভারতের উপরেই।

জানা গিয়েছে, ভারতে করোনা আক্রান্তদের পরীক্ষা করার উদ্দেশ্যে চীনের দুটি সংস্থার কাছ থেকে পাঁচ লক্ষ টেস্ট কিট আমদানি করা হয়। এই সংস্থা দুটির নাম হল ওন্ডফো বায়োটেক ও লিভজোন ডায়াগনোস্টিক্স। এরপর এই কিটগুলি কে ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে পাঠিয়ে দেওয়া হয় করোনা আক্রান্তদের চিহ্নিত করার জন্য। উল্লেখ্য রাজস্থান ও পশ্চিমবঙ্গ থেকেই এই টেস্ট কিটের গুণগত মান সম্বন্ধে প্রশ্ন তোলা হয় এবং বিবৃতিতে জানানো হয় যে পরীক্ষায় সঠিক তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না। তবে এই বিষয়ে চীন একেবারেই নিরুত্তাপ। তারা জানিয়েছে ওই দেশে যথেষ্ট ভালো কার্যকর এই টেস্ট কিট টি। ভারতের ব্যবহারেই গলদ রয়েছে।